Main Menu

সিদ্ধিরগঞ্জে অবৈধ গ্যাস সংযোগের ছড়া-ছড়ি


সিদ্ধিরগঞ্জে অবৈধ গ্যাস সংযোগের ছড়া-ছড়ি। লাখ-লাখ টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ। নাসিক ২নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় এ অবৈধ সংযোগ দিয়ে কোটিপতি বনে গেছে গ্যাস চোর আব্দুল জব্বর ও তার ছেলে নজরুল ইসলাম রনি। তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের নাসিক ২নং ওয়ার্ড এলাকায় তদারকি না থাকায় বাপ-ছেলে তাদের নাম ভাঙ্গিয়ে অবৈধ ভাবে নতুন সংযোগ দেওয়াসহ মাসিক বিল আদায় করছে। এতে সরকার রাজস্ব হারালেও লাভবান হচ্ছে বাপ- বেটা।
সরজমিনে দেখা যায়, সিদ্ধিরগঞ্জের নাসিক ২নং ওয়ার্ড কান্দাপাড়া, মাদ্রাসা রোড, মিজমিজি চৌধুরী পাড়া, মিজমিজি পশ্চিমপাড়া, মৌচাক, বসুহাজী মাকের্ট, মদিনা মসজিদ, সালুহাজী রোড, রহিম মাকের্ট, বটতলা, সাহেবপাড়াসহ এ ওয়ার্ডটিতে চোরাই ভাবে বহুতল ভবনসহ বিভিন্ন ভবন ও কারখানাগুলোতে অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেয়াসহ মাসিক গ্যাস বিল হিসেবে আব্দুল জব্বর ও তার ছেলে নজরুল ইসলাম রনি হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ-লাখ টাকা। একটি সূত্র জানায়, আব্দুল জব্বর ও তার ছেলে নজরুল ইসলাম রনির সাথে নারায়ণগঞ্জ তিতাস অফিসের কতেক কর্মকর্তার যোগ সাজস রয়েছে। এদের হাত করে এ অবৈধ কর্ম-কান্ড চালাচ্ছে বাপ-বেটা। মাঝে মধ্যে দায় সাড়াতে বা-বেটার সহায়তায় এলাকায় অভিযানের নামে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ কতেক অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করাসহ জরিমানা করে চলে গেলে রাতের আধারে অবৈধ ভাবে পূর্নসংযোগ দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে আব্দুল জব্বর ও তার ছেলে নজরুল ইসলাম রনি। এদের আয়ের উৎসের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট তিতাস গ্যাসের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নজরদারি জরুরী বলে মনে করছে সচেতন মহল।






Related News

Comments are Closed