Main Menu

কর্তব্যরত অবস্থায় দুর্ঘটনায় নিহত পুলিশ পরিবারের পাশে সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার

শামীম আখতার, ব্যুরো প্রধান (খুলনা) সাতক্ষীরার আশাশুনি থানায় কর্তব্যরত অবস্থায় দুর্ঘটনায় জীবন উৎসর্গকারী আশাশুনি থানার সহকারী উপপরিদর্শক শাহজামালের পরিবারের নিকট নগদ অর্থ সহায়তা ও উপহার সামগ্রী প্রদান করেন সাতক্ষীরা জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম (বার)।

সোমবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে শোকাহত পরিবারের নিকট নগত ৫০হাজার টাকা ও খাদ্য-সামগ্রী প্রদান করেন মানবিক পুলিশ সুপার।

উল্লেখ্য,গত ১০’ই সেপ্টেম্বর ভোররাতে আশাশুনি থানার এএসআই মোঃ শাহজামাল কনস্টেবল মোঃ নাজমুছ ছাদাতসহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে বুধহাটা বাজার ও আশপাশ এলাকায় রাত্রীকালীন টহল ডিউটির উদ্দেশ্যে মোটর সাইকেল যোগে ডিউটি করা কালীন সময়ে চাঁপড়া ব্রীজের উত্তর পাশে রাস্তার উপর অবৈধভাবে দাড়িয়ে থাকা অতিরিক্ত বাঁশ বোঝাই ঢাকা মেট্রো-ট-২৪-২২৪৪ নং ট্রাকটির পিছনের ঝুলন্ত বাঁশের আগায় লেগে বুকের ডান পাশে ঢুকে মারাত্মক জখম হয়। এবং ফুসফুস ছিদ্র হয়ে শ্বাস-প্রশ্বাস বাহির হতে থাকে। বাম হাতেও মারাত্মক জখম হয়। আহত অবস্থায় তাকে আশাশুনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তার অবস্থার অবনতি হলে অক্সিজেন দিয়ে দ্রুত এ্যাম্বুলেন্স যোগে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন। তার সাথে থাকা কনস্টেবল নাজমুছ ছাদাত বাম হাতে জখম  হওয়ায় তাহাকে প্রাথমিক ভাবে চিকিৎসা করা হয়। জনগণের নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করতে গিয়েই তিনি নিহত হয়েছেন।

এব্যাপারে সাতক্ষীরা জেলা সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন,আশাশুনি থানার কর্তব্যরত অবস্থায় পুলিশ সদস্য নিহতের ঘটনায় আমি খুবই মর্মাহত ও তার রুহের মাগফেরাত কামনা করছি। এমন একটি নির্মম ঘটনায় আমাদের মাঝ থেকে অকালে চলে যাওয়ায় আমি শোকাহত পরিবারের নিকট ব্যাক্তিগতভাবে ৫০ হাজার টাকা ও বিভিন্ন উপহার সামগ্রী তুলে দেওয়ার পাশাপাশি শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.