Main Menu

খুলনায় মেয়াদোত্তীর্ণ লাইসেন্স ও অতিরিক্ত যাত্রী বহনের অপরাধে অর্থদন্ড

শামীম আখতার,ব্যুরো প্রধান (খুলনা) খুলনায় গণপরিবহনে অতিরিক্ত যাত্রীবহন ও মেয়দোত্তীর্ণ লাইসেন্স দিয়ে গাড়ী চালানোর অপরাধে ১১টি মামলায় চালক ও সুপারভাইজারদের ৮ হাজার ৭শত টাকা অর্থদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

জানা গেছে, খুলনার সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের নির্দেশে বৃহস্পতিবাব দুপুরে সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড,জিরো পয়েন্ট ও কৈয়া বাজার এলাকায় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রাকিবুল হাসান ও দীপা রানী সরকার ওই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ(বিআরটিএ)কর্তৃক জারিকৃত গত ২৯ আগস্ট পরিপত্র অনুযায়ী গণপরিবহনে আসন সংখ্যার চেয়ে অধিক যাত্রীবহন না করা এবং সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ কর্তৃক ২০১৬ সালের ৩ মে জারিকৃত প্রজ্ঞাপনমূলে নির্ধারিত হারের ভাড়া অব্যাহত রেখে অতিরিক্ত হারে ভাড়া আদায় না করার শর্তে গণপরিবহন চলাচলের অনুমতি ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনাও দিয়েছেন বাংলাদেশ সরকার।

গণপরিবহনে সরকার নির্দেশিত উপর্যুক্ত শর্ত ও স্বাস্থ্যবিধির সঠিক প্রতিপালন হচ্ছে কিনা তাহা তদারকি করতে এবং সরকারি নির্দেশনা অমান্যকারীদের আইনের আওতায় আনতেই সোনাডাঙ্গা বাসস্যান্ড,জিরো পয়েন্ট ও কৈয়া বাজার এলাকায় খুলনা থেকে ছেড়ে যাওয়া ও খুলনাগামী আন্তঃজেলা বাসসমূহে গণপরিবহনগুলোতে আসন সংখ্যার চেয়েও অধিক যাত্রী বহন ও মেয়াদোত্তীর্ণ ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে গাড়ি চালানোর অপরাধে ও ২০১৮ সালের সড়ক পরিবহন আইনের বিভিন্ন বিধান লঙ্ঘনের দায়ে ১১টি মামলায় গাড়ির চালক ও সুপারভাইজারদের ৮ হাজার ৭শত টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় সহায়তা করেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) খুলনা ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা। সড়ক পরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরাতে এবং যাত্রী সাধারণের অধিকার সংরক্ষণে আগামীতেও জেলা প্রশাসনের এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।






Related News

Comments are Closed