Main Menu

এবার বৈডাঙ্গা ক্লিনিকে অপারেশনের পর স্কুল ছাত্রীর মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাগান্না ইউনিয়নের বৈডাঙ্গা প্রাইভেট হাসপাতালে ভূল অপারেশনে রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে ক্লিনিক মালিক বাদীকে ম্যানেজ করে ফেলেছে। গত দুই মাস আগে ক্লিনিকটিতে সুর্বনা খাতুনের (১৩) এপেনডিক্স অপারেশন করেন রানা ও ফারুক আহম্মেদ। অপারেশনের পর ২৫দিন যাবৎ সুবর্না ঐ ক্লিনিকেই চিকিৎ নেয়। তার অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা আগারগাও ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ নিউরোলজি বিভাগে রেফার্ড করা হয়। সেখানে ৩৩ দিন চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় শুক্রবার তার মৃত্যু হয়। সুবর্না সদর উপজেলার বাজার বৈডাঙ্গা এলাকার সৌদি প্রবাসী সুমন মন্ডলের মেয়ে ও বৈডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, বৈডাঙ্গা প্রাইভেট হাসপাতালে প্রতিনিয়তই এমন ঘটনা ঘটে। স¤প্রতি কোলা গ্রামের এক প্রসূতির সিজারিয়ান অপারেশনের পর থেকে তিনি গুরুত্বর অসুস্থ রয়েছে। গত বুধবার সাগান্না ইউনিয়নের বকশিপুর গ্রামের এক প্রসূতির সিজারিয়ান অপারেশনের সময় নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। ঐ ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামের আরেক প্রসূতির সিজারিয়ান অপারেশনে মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। আরো অভিযোগ উঠেছে ক্লিনিকটিতে সার্জিক্যাল ও এনেস্থেসিয়া ডাক্তার ছাড়াই মালিকরা ডাক্তার সেজে এবং আয়ারা নার্স সেজে অপারেশন করে। ঘটনার বিষয়ে জানতে বৈডাঙ্গা প্রাইভেট হাসপাতালের মালিক জহুরুল বিশ^াস, ডাক্তার ফারুক আহমেদ ও রানার সাথে কথা বলার চেষ্টা করে কাউকে পাওয়া যায়নি। ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন সেলিনা বেগম জানান, এ ব্যাপারে কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। উল্লেখ্য দুই সপ্তাহ আগে মহেশপুর ও হরিণাকুন্ডুর ক্লিনিকে ৪ প্রসুতির মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত হতে না হতে আবারো অপচিকিৎসায় মৃত্যুর ঘটনা ঘটলো।






Related News

Comments are Closed