Main Menu

হত্যাকান্ডের ২০ বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো বিচার পায়নি তাঁর পরিবার

সোহেল রানা,নওগাঁঃ ২০০০ সালে ১৮ আগষ্ট খাস জমি দখলকে কেন্দ্র করে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার ভীমপুর আদিবাসী পল্লীতে প্রকাশ্য দিবালোকে বলিহার ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক চেয়ারম্যান হাতেম আলী ও শীতেষ ভট্টাচার্য গদাইয়ের ভাড়াটে লাঠিয়াল বাহিনী আদিবাসী নেতা আলফ্রেড সরেনকে কুপিয়ে নৃসংশভাবে হত্যা করে। ওই সময় সন্ত্রাসীরা ব্যাপক তান্ডব চালিয়ে আদিবাসী পল্লীর ১১টি পরিবারের বাড়িঘর ভাংচুর লুটপাট অগ্নিসংযোগ করাসহ তারা এক শিশুকে পুকুরে ছুড়ে ফেলে। তাদের হামলায় আদিবাসী মহিলা-শিশুসহ প্রায় ৩০ জন মারাত্মক আহত হয়। ওই সন্ত্রাসী ঘটনার পর নিরপত্তার জন্য সেখানে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প বসানো হয়। পরে তা গুটিয়ে নেয়া হয়েছে। আপসহত্যাকান্ডের ২০ বছর পেরিয়ে গেলেও এখনো বিচার পায়নি তাঁর পরিবার। চরম নিরাপত্তহীনতায় ভুগছেন সেখানে বসবাসরত আদিবাসীরা। তাদেরকে দেয়া হচ্ছে প্রতিনিয়তয় হুমকি ধামকি। 
প্রকাশ্য দিবালোকে আলফ্রেড সরেনকে কুপিয়ে নৃসংশভাবে হত্যা করার পরও দীর্ঘ ২০ বছর পেরিয়ে গেলেও তার হত্যার বিচার না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তাঁর স্বজনরা। অসহায় এ পরিবার বিচারের আশায় দীর্ঘদিন ঘুরেছেন আইনের দ্বারে দ্বারে। দ্রুত এ হত্যার বিচার চান তারা। 

এ মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী বলেন বর্তমানে আলফ্রেড সরেন হত্যা মামলাটি অ্যাপিলেড ডিভিশন শুনানী অন্তে পূর্নাঙ্গ শুনানীর জন্য হাইকোর্ট ডিভিশনে প্রেরন করেছে। রিটগুলো শুনানীর অপেক্ষায় থাকায় নি¤œ আদালতে সাক্ষ্য গ্রহণসহ অন্যান্য কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।
আদিবাসী নেতারা বলছেন সারা দেশে আদিবাসীদের উপর নির্যাতন নিপীরণ অব্যাহত রয়েছে। আর বর্তমান সরকার কথা দিলেও আদিবাসীদের স্বার্থ রক্ষায় উদাসীন। তবে আদিবাসীদের স্বার্থ রক্ষায় আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলে জানান এই নেতা।
 আজ (১৮ আগষ্ট) নিহত আদিবাসী নেতা আলফ্রেড সরেনের ২০ তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও বিক্ষোভ প্রদর্শনের পাশপাশি ভীমপুরে আলফ্রেড সরেনের সমাধীতে শ্রদ্ধা জানিয়ে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়।






Related News

Comments are Closed