Main Menu

নাসিক ১ নং ওয়ার্ডয়ে মসজিদ কমিটি নিয়ে যে কোন সময় ঘটতে পারে অনাকাঙ্খিত ঘটনা

প্রতিনিধি: নাসিক ১ নং ওয়ার্ড মজিববাগ এলাকায় প্রতিষ্ঠিত মসজিদুল আউলিয়া জামে মসজিদ। উক্ত মসজিদের চলিত কমিটির সাথে কোন প্রকার আলোচনা ছাড়াই একদল মুসুল্লি নতুন কমিটি গঠন করার পায়তারা করছে। এতে মসজিদটির প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে জড়িয়ে থাকা মুসুল্লিদের বাদ দেওয়ায় দু’টি পক্ষের সৃষ্টি হয়েছে। কমিটি গঠন নিয়ে যে কোন সময় ঘটতে পারে অনাকাঙ্খিত ঘটনা। যা সামাল দিতে কষ্টের কারন হয়ে দাড়াতে পারে এলাকাবাসীর। সচেতন এলাকাবাসী নতুন কমিটি গঠনের পায়তারা কারীদের বিপক্ষে অবস্থান করছেন।
জানা যায়, গত ২’হাজার ৮’সালে মজিববাগ এলাকার কামরুল হোসেনের উদ্যোগে মাওলানা মোঃ আব্দুর রহমান, আলহাজ্ব হুমায়ন কবির, মোঃ আব্দুল মোতালেব, মোঃ নজরুল ইসলাম গং, রমজান আলী, আক্কাস আলী, আব্দুর রাজ্জাক, মরহুম মোবারক আলী, মরহুম আক্তার দেওয়ান, মরহুম সিদ্দিকুর রহমান, মোঃ সফিকুল ইসলাম, ফজলুল হক মুন্সি, রজ্জব আলী, মফিজ মিয়া ও ইউসুফ মিয়াসহ বেশ কয়েকজন এ মসজিদটি প্রতিষ্ঠা করেন। মসজিদের জমি ওয়াকফা করেন আলহাজ্ব আশরাফ উদ্দিন প্রধান। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এ মসজিদটির দেখা শোনা ইমাম, মোয়াজ্জেমের বেতন উল্লেখিত ব্যাক্তিরাই দিয়ে আসছে। গত কয়েক মাস পূর্বে এলাকায় নতুন ভাবে গড়ে উঠা বসত বাড়ীর মালিক ও ভাড়াটিয়ারা কমিটির সমালোচনা করে আসছে। এক পুলিশ কর্মকর্তার বলে বলিয়ান হয়ে কতিপয় নতুন লোক পুরান কমিটিকে বাদ দিয়ে নতুন কমিটি করার পায়তারা করছে। তারা পূর্বের কমিটির প্রধান উপদেষ্টা আলহাজ্ব হুমায়ন কবিরকে বাদ দিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ বাজার সাইলো এলাকার আওয়ামীলীগে অনুপ্রবেশকারী আলহাজ্ব আব্দুল মতিন প্রধানকে প্রধান অপদেষ্টা করার পায়তারা করছে। নতুন কমিটি করার পায়তারা কারীরা জামায়াত বিএনপি’র লোক হওয়ায় তাদের পছন্দ মত লোকজন দিয়ে এ কমিটির খসরা করেছে বলে গোপন সূত্রে জানা যায়। থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মজিবুর রহমানের নামে এলাকাটি মজিববাগ হলেও জামায়াত বিএনপির লোকেরা মজিবুর রহমান থাকা অবস্থায় তাকে প্রধান উপদেষ্টা না করে আওয়ামীলীগে অনুপ্রবেশকারী মতিন প্রধানকে প্রধান উপদেষ্টা করার পায়তারা করায় ও মসজিদজির প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে কমিটিতে থাকা লোকজনকে বাদ দেওয়ায় এলাকায় তীব্র সমালোচনা চলছে। যে কোন সময় এ মসজিদ কমিটি নিয়ে ঘটতে পারে অনাকাঙ্খিত ঘটনা। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করছে এলাকাবাসী।#






Related News

Comments are Closed