Main Menu

প্রকাশিত সংবাদ প্রসংঙ্গে

  1. গত ০৯ই আগস্ট ২০২০ ইং তারিখ রাজশাহী থেকে প্রকাশিত রাজশাহীর সময় ডট কম নামের একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে “রাজশাহীতে মাদক সম্রাজ্ঞী কলি’র মাদকের ব্যবসা রমরমা” শিরোনামে প্রতিবেদনে যে তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে তা সঠিক নয়। এক প্রতিবাদ লিপিতে তাকে জড়িয়ে এ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সংবাদের ব্যাখ্যা দিয়েছেন বোয়ালিয়া সেখেরচক এলাকার জিল্লু রহমানের মেয়ে মোছাঃ কলি।
  2. তিনি বলেন, গত দুই থেকে তিন বছর আগে এক সময় মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত ছিল তার পরিবার। দেশ রত্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষনার পরেই মাদক ব্যবসা বন্ধ করে দেন তার পরিবার। এ ছাড়া কলি বিবাহ্ করে স্বামীর সাথে থাকেন। বাবার বাড়িতে তেমন যাওয়া আসাও নেই। ফলে মাদক ব্যবসার সাথে কোন ভাবেই জড়িত নেই। গত ২ থেকে ৩ বছর আগে ওয়ার্ড কাউন্সিলরের নির্দেশে ও বোয়ালিয়া মডেল থানার ততকালিন পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে আমার বাবা-মার পরিবার মাদক ব্যবসা বন্ধ করে দেয়। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাড়ির সামনেই পোস্টার সাটিয়ে দেয়া হয়। তার পর থেকে ওই এলাকায় মাদক ব্যবসা বন্ধ হয়ে গেছে।

তিনি আরো বলেন, একটি চক্র হলুদ সাংবাদিকদের দিয়ে অর্থের বিনিময় আমার ও আমার স্বামীকে বিপদে ফেলতে এবং সম্মান ক্ষুন্ন করতে উঠে পড়ে লেগেছে। একটি চক্র বেশ কিছু দিন আগে হলুদ সাংবাদিকের কথা বলে আমার কাছে চাঁদা দাবি করে। আমি ও আমার স্বামী কোন মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত নেই তাই তাদের দাবি কৃত চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করি। তার পরেই আমাকে ও আমার স্বামীকে এবং পরিবারকে জড়িয়ে এ মিথ্যা প্রতিবেদন করা হয়েছে। এমন মিথ্যা ভিত্তিহীন সংবাদের তিব্র প্রতিবাদ জানায়।

তাছাড়া ২০টি মাদক মামলার কথা বলা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমার পূর্বের তিনটি মামলার মধ্যে দুইটিতে আমি মুক্তি পেয়েছি। একটি আছে তা আদালতে চলমান। এ তিনটি মামলা দুই থেকে তিন বছর আগের।

এছাড়া, ডিজিটাল ব্যবসা রয়েছে, মাধ্যম ফেসবুক, ইমু ও ম্যাসেনঞ্জার। মাদকের অর্ডার নিয়ে তার লেবার দিয়ে হোম ডেলিভারি দিয়ে থাকে। কলি’র মাদক সিন্ডিকেট শহরজুড়েই সকলেরই বক্তব্য এ তথ্য সঠিক নয়। শহরে কোন নির্দিষ্ট ব্যক্তি এমন বক্তব্য প্রতিবেদনে নাম উল্লেখ নেই। তার অর্থ প্রতিবেদক মনগড়া তথ্য উল্লেখ করেছে। আমি যে কোন মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত নেই তা প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা অবহিত রয়েছে। কোন সু নির্দিষ্ট তথ্য প্রমান ছাড়া আমাকে জড়িয়ে এমন সংবাদ প্রকাশ করা হলুদ সাংবাদিকতা। আগামীতে এমন প্রমান ছাড়া কোন সংবাদ প্রকাশ করা হলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য হবো বলে জানান মোছাঃ কলি।

প্রতিবাদন্তে

মোছাঃ কলি

সেখেরচক,বোয়ালিয়া,রাজশাহী






Related News

Comments are Closed