Main Menu

অনিয়মের অভিযোগে স্কুল এন্ড কলেজের নির্মান কাজ বন্ধ

সিলেট প্রতিনিধি :: সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের ভবন নির্মাণে উঠেছে অনিয়মের অভিযোগ। স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও এলাকাবাসী অভিযোগ নিম্নমানের বালু ও পাথর দিয়ে ভবনের ছাদ ঢালাইয়ের কাজ করছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এম আহমদ ট্রেডার্স এন্ড এমআর কন্সট্রাকশন।
স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও এলাকাবাসী অভিযোগের বিষয়টি সাংবাদিকরা সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি-কে অবগত করলে তিনি তাৎক্ষনিকভাবে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রকৌশলী নজরুল হাকিম-কে গোলাপগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুলের ভবন নির্মাণের কাজ বন্ধ করতে নির্দেশ দেন। এবং অভিযোগকৃত অনিয়মের তদন্ত করে ভালো মানের নির্মাণসামগ্রী দ্বারা ভবন নির্মানের নির্দেশনা দেন তিনি।
উল্লেখ্য, সোমবার (২৭ জুলাই) সকালে গোলাপগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুলের নির্মাণাধীন একটি ভবনের প্রথম তলার ছাদ ঢালাইয়ের কাজ শুরুর পর এলাকাবাসীর নজরে আসে ঢালাই কাজে ব্যবহৃত বালুর বেশির ভাগই পলিমাটি মিশ্রিত এবং কাজে ব্যবহৃত পাথর লালচে রঙের। পাথর গুলোর উপরের দিক সাদা রঙের পাথরের প্রলেপ দিয়ে ডাকা। পরে তাৎক্ষণিক স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও এলাকাবাসী এর প্রতিবাদ জানালে কাজে নিয়োজিত সাইট ইঞ্জিনিয়ার এর সদুত্তর দিতে পারেননি।
এলাকার বিশিষ্ট মুরুব্বী ও সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল খালিক বলেন, নির্মাণের কাজে ব্যবহৃত বালুর মধ্যে মাটি ও কাঁদার মিশ্রণ রয়েছে। এছাড়া মরা ও কাঁদাযুক্ত পাথরের উপরে এক স্তর সাদা পাথরের প্রলেপ দিয়ে ঢাকা আর নিচের পুরো পাথর লালচে রঙের।
অনিয়ম প্রসঙ্গে নির্মাণাধীন প্রতিষ্ঠানের কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান এম আহমদ ট্রেডার্স এন্ড এমআর কন্সট্রাকশন এর স্বত্ত্বাধিকারী মারুফ আহমদ অভিযোগ অস্বীকার করেন।
এ ব্যাপারে মুঠোফোনে শিক্ষা অধিদপ্তর সিলেট জোনের নির্বাহী প্রকৌশলী নজরুল হাকিমের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি মিটিং এ আছেন বলে জানান।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.