Main Menu

উওরায় কুমিল্লা অব ইউনিভার্সিটির বিরুদ্ধে জাল সার্টিফিকেট বিক্রির অভিযোগ

  নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর  উত্তর ১৫ -ছায়াবাড়ি ভবন রোড-৩১ সেক্টর-৭ অবস্থিত।শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে জাল সার্টিফিকেট বিক্রি অভিযোগ পাওয়া গেছে।তথ্যমতে জানাযায়,বিগত ৬ মাস আগে কুমিল্লা অব ইউনিভার্সিটির ব্রোকার আহসান কবির উওরায় বাসিন্দা ফারুক হোসেন টুটুল নামে এক ব্যক্তির কাছে ২ লক্ষ টাকার চুক্তিতে ২ সপ্তাহের মধ্যেই সার্টিফিকেট তৈরি করে দিবে।চুক্তির প্রথমে ফারুক হোসেন টুটুল ব্রোকার আহসান কবিরকে ৪০ হাজার টাকা অগ্রিম দেন এবং টাকার পরিপেক্ষিতে আহসান  কবির তার নিজের নামে অ্যাকাউন্ট হইতে ব্যাংক এশিয়া একটি চেক দেন টুটুলকে যাহার নাম্বার ০৫৮২৭৯৬।হঠাৎ করে মহামারি করোনার কারনে সব কিছু বন্ধ হয়ে গেলে কবির নানা রকম মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে ৬ মাস ঘুরাতে থাকে।গত ১৬ জুন আহসান কবির চুক্তির বাকীটাকা নিতেএবং জাল সার্টিফিকেট দিতে আসে দক্ষিনখান এমতাবস্থায় কিছু ব্যক্তি ঘটানাটি জেনে ফেলে ও অহসান কবিরকে হাতে না হাতে ধরে ফেলে। আহসান কবির সব কিছু স্বীকার করে বাচার জন্য আকুতি মিনতি করেন।পরবর্তীতে ফারুক হোসেন টুটুলের সকল টাকা ফেরত দেন আহসান কবির তিনি আমাদের জানান,কুমিল্লা অব  ইউনিভার্সিটির কিছু অসাধু কর্মকর্তা  আছে যাদের মাধ্যমে এই সার্টিফিকেট বিক্রি হয়।এই চক্রে আমি একা নই, আমার সাথে আরো অনেক রকম ব্রোকার আছে, যাদের কাজ সার্টিফিকেট বিক্রি করা।আহসান কবিরের দেশের বাড়ি নোয়াখালী জেলার চাটখিল পৌরসভার পশ্চিম সুন্দরপুর।বর্তমানে কুড়িল বিশ্বরোড তিনি বসবাস করেন।উক্ত বিষয় সম্পর্কে কুমিল্লা  অব ইউনিভার্সিটির কর্মকর্তা মোঃএনামুলকে জানালে তিনি নানা রকম টালবাহানা দেখিয়ে মিথ্যা বলে বিষটি উড়িয়ে দেন। 






Related News

Comments are Closed