Main Menu

নওগাঁয় বিএসএফের নির্যাতনে একজন নিহত


 সোহেল রানা,নওগাঁ জেলা, প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহার সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)-এর নির্যাতনে আব্দুল বারী (৪৫) নামে এক চোরাকারবারীর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (১৭ জুন) ভোরে সাপাহার আদাতলা সীমান্তে এ ঘটনা ঘটে। আব্দুল বারী উপজেলার দক্ষিণ পাতাড়ি গ্রামের আবু বক্করের ছেলে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে আব্দুল বারীসহ একদল চোরাকারবারী পূর্নভবা নদীর আদাতলার সীমান্ত দিয়ে ভারতে প্রবেশের চেষ্টা করছিলেন। এসময় বিএসএফ সদস্যরা বুঝতে পেরে তাদের তাড়া করে। 
বাকি চোরাকারবারীরা পালিয়ে আসতে পারলেও আব্দুল বারী ফিরতে পারেননি। নির্যাতনের পর তাঁকে পুর্নভবা নদীর তীরে তারকাটার পাশে বাংলাদেশের সীমানায় ফেলে দেয় বিএসএফ। বুধবার ভোরে নিহতের মরদেহ তারকাটার পাশে পড়ে থাকতে দেখে থানা পুলিশে খবর দেয়া হয়।
১৬ বিজিবি আদাতলা ক্যাম্পের সুবেদার আব্দুল হান্নান বলেন, একদল চোরাকারবারী ভারতে প্রবেশের জন্য পূর্নভবা নদীর কিনারে অপেক্ষা করছিলেন। ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে ককটেল ছুড়ে মারে। এসময় তারা গুরুতর অবস্থায় পালিয়ে যান। তিনি বলেন, তারা বিজিবির তালিকাভুক্ত চোরাকারবারী। দীর্ঘদিন তারা পালিয়ে থাকায় আটক করা সম্ভব হচ্ছিল না।
সাপাহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাই বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বুধবার (১৭ জুন) সকাল আটটার দিকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এর আগে, গত ১৫ জুন নওগাঁর পোরশা উপজেলার নীতপুর সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) আগ্রাবাদ ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যদের গুলিতে সুভাস রায় নামে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন।






Related News

Comments are Closed