Main Menu

র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ১৮ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার- গ্রেফতার ২

১৮ এপ্রিল ৪ ঘটিকায় গোপনসূত্রে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানাধীন মদনপুর বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন রাফি ফিলিং স্টেশন এর সামনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে র‌্যাব-১১ এর অভিযানে কক্সবাজার থেকে ঢাকাগামী একটি নীল রংয়ের কাভার্ডভ্যান তল্লাশী করে ১৮ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। তল্লশীকালে ইয়াবা পাচারের দায়ে কাভার্ডভ্যান এর চালক মোঃ টিপু মু›সী (২৬) ও হেলপার মোঃ নাঈম মু›সী (২১)কে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় মাদক ব্যবসার কাজে ব্যবহৃত ০১টি নীল রংয়ের কাভার্ডভ্যান ও ৭৪০ টি প্লাসস্টিকের খালি ক্যারেডও জব্দ করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা কক্সবাজারের উখিয়া এলাকা হতে কাভার্ডভ্যানে প্লাস্টিকের খালি ক্যারেড বোঝাই করে ঢাকা যাচ্চিল। উক্ত কাভার্ডভ্যানের ভেতর রক্ষিত ৭৪০টি খালি ক্যারেডের মধ্যে ০৩টি ক্যারেডের পিছনের অংশের পাইপে বিশেষ ছিদ্র করে তার ভিতরে ইয়াবা লুকিয়ে কাঁদা দিয়ে তা পুনরায় ভরাট করে সুকৌশলে পাচারের উদ্দেশ্যে ঢাকা আসছিল।

৩। গ্রেফতারকৃতদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ী মোঃ টিপু মু›সী ও মোঃ নাঈম মু›সী এর বাড়ি বরিশাল জেলার উজিরপুর থানাধীন পূর্ব মন্ডপাশা এলাকায়। গ্রেফতারকৃত কাভার্ডভ্যান চালক মোঃ টিপু মু›সী ও হেলপার মোঃ নাঈম মু›সী পরস্পর যোগসাজসে দীর্ঘদিন ধরে চালক ও হেলপার এর ছদ¥বেশ ধারণ করে অভিনব কায়দায় নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য ইয়াবা কক্সবাজার থেকে ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ ও এর আশপাশের এলাকায় সরবরাহ করে আসছিল। জিজ্ঞাসাবাদে আরো স্বীকার করে যে তারা দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে কক্সবাজারের সীমান্ত এলাকা দিয়ে অভিনব কায়দায় নিষিদ্ধ মাদকদ্রব্য ইয়াবা বাংলাদেশে প্রবেশ করায় এবং বিভিন্ন অভিনব কৌশলে নিয়ে এসে ঢাকা, গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করে আসছে। তাদের একমাত্র পেশা ছিল মাদক ব্যবসা। মাদকের বিরুদ্ধে র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

৪। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।






Related News

Comments are Closed