Main Menu

নারায়ণগঞ্জে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত ৪৫, মৃত্যু ৪

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জে প্রানঘাতি করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৫ জন আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে জেলায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ১১৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। যার মধ্যে প্রাপ্ত ফলাফলে ৪৫ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত জেলায় মোট ৬৫৫ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। যার মধ্যে ২৬১ জনের ফলাফলে পজিটিভ এসেছে।
শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) সকাল ৮টা পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত মোট রোগীর সংখ্যা ২৮০ জন। এদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৯ জনের। আর সুস্থ হয়েছেন ছয়জন।
সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির প্রতিনিধি ডা. জাহিদুল ইসলাম এ সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
প্রসঙ্গত, করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ৩০ মার্চ নারায়ণগঞ্জ বন্দরে প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এক নারীর মৃত্যু হয়। পরে ৪ এপ্রিল এক আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যু হয় বাংলাবাজার এলাকায়। এরপর ৫ এপ্রিল শহরের জামতলায় একজন ও দেওভোগ আখড়া এলাকায় আরেকজনের মৃত্যু হয়। ৬ এপ্রিল শীতলক্ষ্যা এলাকায় একজন এবং চাষাঢ়ার মাসুদা প্লাজার মালিকের মৃত্যু হয়। ৭ এপ্রিল দেওভোগে একজন গিটারিস্টের মৃত্যু হয়। ৮ এপ্রিল সিদ্ধিরগগঞ্জে আদমজী আঞ্চলিক শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি এবং ৯ এপ্রিল ফতুল্লার সস্তাপুরে এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়। ১২ এপ্রিল দেওভোগের এক ব্যক্তি, চাষাঢ়ায় এক ফার্মেসির মালিক ও ফতুল্লার ইসদাইরের এক নারীর মৃত্যু হয়। ১৩ এপ্রিল সিদ্ধিরগঞ্জের ও ফতুল্লার ধর্মগঞ্জে দুই নারীর মৃত্যু হয়। ১৫ এপ্রিল ফতুল্লায় একজন, বন্দরের দুইজন ব্যক্তি, রূপগঞ্জে গোলাকান্দাইলের এক নারী ও শহরের খানপুরের এক গাইনি বিভাগের চিকিৎসকের মার মৃত্যু হয়। তারও আগে গত ৮ মার্চ জেলায় ভাইরাসটিতে আক্রান্ত দু’জনকে শনাক্ত করে সরকারের রোগতত্ত¡, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। তারা ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। পরে ২৩ মার্চ জেলায় আরও একজন আক্রান্ত পাওয়া যায় বলে জানিয়েছিলেন জেলা সিভিল সার্জন। ওই ব্যক্তিও গত ১ এপ্রিল সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন। এছাড়া চিকিৎসাধীন থাকাদের মধ্যে তিনজন ১৩ এপ্রিল সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন।






Related News

Comments are Closed