Main Menu

নারায়ণগঞ্জে পাঁচ ঘন্টার ব্যবধানে দুইজনকে কুপিয়ে হত্যা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি :নারায়ণগঞ্জে পাঁচ ঘন্টার ব্যবধানে পূর্ব শত্রæতার জের ধরে পৃথক দু’টি ঘটনায় অবিনাশ (৫৩) ও শরীফ (৩০) নামে দুইজনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বুধবার (১ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৬টায় রূপগঞ্জ উপজেলার গোলাকান্দাইল ইউনিয়নের পেরাবো এলাকায় এবং সকাল সাড়ে ১১টায় নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার দেওভোগ আদর্শনগর এলাকায় এ পৃথক দু’টি ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকাল সাড়ে ৬টায় রূপগঞ্জের পেরাবো এলাকায় কেটে ফেলা নারিকেল গাছের গুড়ি নেওয়াকে কেন্দ্র করে অবিনাশ নামে এক বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় অন্তত আরও ১৫ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। নিহত অবিনাশ ওই এলাকার মৃত প্রাণ কুমারের ছেলে।
নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, পোরাবো এলাকার নিহত অবিনাশ সরকারের সঙ্গে তার চাচাতো ভাই অর্জুন সরকারের দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ ছিলো। পরে স্থানীয় গ্রাম্য সালিশে বিরোধের নিষ্পত্তি ঘটে। সকালে নারিকেল গাছের গুড়ি নেওয়াকে কেন্দ্র করে পুনরায় দু’পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে অর্জুন, অনুক‚ল, স্বদেব সরকারসহ ৮/১০ জন মিলে অবিনাশ সরকারকে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়েএলোপাথাড়ি কোপায়। এসময় তাকে বাঁচাতে তার ছেলে দুর্জয় সরকার, ভাতিজা যীষ্ণু ও প্রকাশ সরকারসহ কয়েকজন ঘটনাস্থলে গেলে তাদেরকেও এলোপাথাড়ি কোপায়। মুমূর্ষু অবস্থায় অবিনাশ সরকারকে ভূলতা মেমোরি হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান জানান, গুরুতর আহত দুর্জয়, প্রকাশ ও যীষ্ণু সরকারকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে বাড়িঘরে তালা ঝুলিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন পালিয়ে গেছে।
অপরদিকে, একই দিন সকাল সাড়ে ১১টায় নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার দেওভোগ আদর্শনগর এলাকায় শরীফ নামে এক ইলেকট্রনিক্সের ব্যবসায়ীকে পূর্ব শত্রæতার জের ধরে কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা। নিহত শরীফ ওই এলাকার আলাল মাদবরের ছেলে। ওই এলাকায় বৃষ্টি ইলেকট্রনিক্স নামে টিভি, ফ্রিজ বিক্রয়ের একটি দোকান ছিল শরীফের।
নিহতের স্বজনরা জানান, আদর্শনগর এলাকার কিছু লোকজনের সাথে শরীফের পূর্ব শত্রæতা ছিল। ওই শত্রæতার জের ধরেই তাকে দিনে-দুপুরে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।
শরীফের খালাতো ভাই মেহেদী হাসান বলেন, এলাকার শাকিল, লালন নামে কয়েকজনের সাথে শরীফ ভাইয়ের শত্রæতা ছিল। কয়েক মাস আগে এক ঝামেলায় চেয়ারম্যান-মেম্বাররা মিলে মিটমাট করে দিছে। তারপরও ওরা ঝামেলা করে। তিন-চারদিন আগেও তারা দোকানে আইসা ঝামেলা করছে।
স্বজনদের অভিযোগ, শাকিল, লালন ওরা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে বেড়ায়। কাশীপুর ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার শামীমের ছত্রছায়ায় তারা চলে।
এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন বলেন, দেওভোগ আদর্শনগর এলাকায় যুবককে কুপিয়ে হত্যার ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ পাঠিয়েছি। লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এলাকার কিছু ছেলের সাথে নিহতের পূর্ব শত্রæতা ছিল বলে স্বজনরা জানিয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।






Related News

Comments are Closed