Main Menu

আইনের তোয়াক্কা না করে ড্রেজার দিয়ে বালু কেটে আবাদি জমি ও বসতভিটা ধ্বংস করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে – বাউশিয়া ইউপিঃ চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান প্রধানের বিরুদ্ধে -পর্ব-২

মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয় উপজেলার বাউশিয়া ইউপিঃ চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান প্রধান ও মোনায়েম কোম্পানি অবৈধভাবে ফসলি জমি থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করছে। এতে হুমকির মুখে পড়েছে পার্শ¦বর্তী এলাকার কয়েক’শ একর আবাদি জমি ও ঘরবাড়ি। নষ্ট হয়ে যাচ্ছে এলাকার জনসাধারণের চলাচলের রাস্থা। এব্যাপারে ও, সি, গজারিয়ার সাথে কথা হলে তিনি বলেন বিষটি আমার যানা নেই উপজেলা নির্বাহী অভিসার, ও এসিলেন্ড, যদি ভ্রামমান আদালতের মাদ্যমে অভিযান পরিচালনা করে আমাকে বল্লে আমি আইনগত ব্যাবস্থা নিব। আবাদি জমি ও বসতভিটা কেটে বালু উত্তলনের ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার গজারিয়া, মুন্সিগঞ্জের, সাথে কথা হলে তিনি বলেন চেয়ারম্যান তো বালু কাটেনা কে কাটে যানতে চাইলে তিনি বলেন আমি একটি মিটিংয়ে আছি বলে ফোন কেটে দেন।

জানা যায়, উপজেলার বাউশিয়া ইউনিয়নের চরকুমারিয়া বালুরচর সহ কয়েকটি গ্রাম থেকে দীর্ঘদিন যাবত অবৈধভাবে ফসলি জমি থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছে ইউপিঃ চেয়ারম্যান মিজানু রহমান প্রধান । বালু উত্তোলনে এলাকার পার্শ্ববর্তী আবাদি জমি বসতভিটা হুমকির মুখে পড়ছে। আর প্রতিদিন ট্রলি দিয়ে বালু পরিবহনের ফলে চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে চলাচলের পাকা সরক গুলো এলাকা বাসি যানায় প্রায় কয়েক মাস ধরে চেয়ারম্যান ও মোনায়েম কোম্পানি বালু কেটে ফশলি জমি বসত বাড়ি ধ্বংস করলেও স্থানীয় প্রশাসন কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় আরো ব্যপোরোয়া হয়ে পরেছে তারা, হুমকির মুখে পড়েছে আবাদকৃত ফসলি জমি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে চলাচলের রাস্থা গুলো ।

চেয়ারম্যান মিজানুর রহমানের মোবাইলে একাদিক বার ফোনদিলে তার ফোন বন্দ পাওয়া যায়, পরে তার সহচারি মামুন মেম্বারের কাছে রাস্থা ক্ষতি হচ্ছে জানতে চাইলে বলেন সরকারি রাস্থা গাড়ি চলাচল করবে খতিহতেই পারে তিনি আরো বলে অনেক সাংবাকিরা চেয়ারম্যানের কাছে চা খেতে আসে আপনি ও আসবেন আপনাকে নিরাস করবে না ।

বাউশিয়া ইউনিয়নের চরকুমারিয়া বালুরচর সহ কয়েকটি গ্রাম ধংষ করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে বাউসিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান প্রধান ও মোনায়েম কম্পানির বিরুদ্বে গ্রামবাসিরা যানায় সরকার ভূমিহীনদের বসবাস ও আবাদ কৃত বরাদ্বের জমি নাম মাত্র অর্থ দিয়ে জোর পূর্বক ভয়ভিতি দেখিয়ে লিখে নিয়ে ড্রেজার দিয়ে বালু কেটে ধংষ করে দেয়া হচ্ছে কয়েকটি গ্রাম।ভূমিহীন জমির মালিকরা বলেন সরকার আমাদের জমি দিয়েছে বসবাস ও আবাদি চাশাবাদ করে খাওয়ার জন্য কিন্তু মিজানুর রহমান ও মোনায়েম কম্পানি আমাদের কাছ থেকে জোরকরে নামমাত্র অর্থ দিয়ে লিখে নিয়ে ড্রেজার দিয়ে বালু কেটে ধ্বংস করে দিচ্ছে কয়েকটি গ্রাম আবাদি জমি সহ বসতবাড়ি।






Related News

Comments are Closed