Main Menu

দক্ষিন খানে ভন্ড কবিরাজের ভন্ডামি

প্রতিনিধিঃ ভন্ড কবিরাজ মোস্তফা হুজুর পরিপূর্ণ সুন্নতি লেবাজ পরিহিত অবস্থায় দক্ষিন খান থানার অন্তরগত গাওয়াইর পেয়ারা বাগান মদিনা মন্জিল ভাড়া বাড়ীতে বসে রমরমা ভন্ড কবিরাজী ব্যাবসা চালিয়ে যাচ্ছে।ইউটুবে প্রচারের মাধ্যমে দালাল চক্রের সহ যোগিতায় দুর দুরান্ত থেকে লোক আনায়নের মাধ্যমে কৌশলি প্রকৃয়ায় কবিরাজ বাণিজ্য করছে।পত্রিকার প্রতিবেদক প্রান্ত পথিক অনুসন্ধানী কার্যে এলাকাবাসির ভাষ্য থেকে জানতে পারে যে,ভন্ড কবিরাজ মোস্তফা এলাকার কিছু সন্ত্রাসী ও কু চক্রী মহলের শেলটারে মোস্তফা কবিরাজের ভন্ডামি চিকিৎসার মাত্রা দিনের পর দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। শেলটার দাতারা তার ভন্ডামির ইন কাম থেকে প্রতি দিন হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা।কবিরাজ কোরআন হাদিসের নাম বিক্রি করে ফু দিয়ে ও কৌশলে রশি মাপের মাধ্যমে প্রতি দিন হাতিয়ের নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা ।প্রতিটি রোগীর জন্য ফি দিতে হয় কমপক্ষে ১০০০/- টাকা।রোগ যত জটিল, টাকা ততকঠিন।যেখানে কবিরাজের আসন তার দোতলায় ছাঁদের উপর রোগীদের বসার স্থান। সেখান থেকে এক এক জনকে নিয়ে যান তার গোপন আস্তানায়।সেখানে গেলে দরজা বন্ধ করে চিকিৎসা করেন।মেয়েদের জরায়ু সমস্যা থাকলে এবং কোনো মেয়ের সন্তান না হলে প্রথমে সেই রোগীর নাভী থেকে শুরু করে পা পর্যন্ত রশি দিয়ে মাপ নেন।তার পর নাভীর নীচের অংশের মাপ নেন।এতোটা বেয়াদবির কারনে লজ্জায় দ্বিতীয় বার আর সে রোগী সেখানে আসেনা।বিশ্বে এরকম ভন্ড কবিরাজ আরো আছে কিনা তা জানা নেই। পরবর্তী সংখায় চোখ রাখুন’’’’’’’’’’।






Related News

Comments are Closed