Main Menu

শাবানার স্বামী ওয়াহিদ সাদিকের কেশবপুরে উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা

শামীম আখতার, ব্যুরো প্রধান (খুলনা): কিংবদন্তী চিত্র নায়িকা শাবানার স্বামী এ. কে. এস. ওয়াহিদ সাদিক যশোর-৬ (কেশবপুর) সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করার ইচ্ছা ব্যক্ত করেছেন। মঙ্গলবার দুপুরে তিনি কেশবপুর উপজেলার বড়েঙ্গা গ্রামের নিজ বাড়িতে জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ ইচ্ছা ব্যক্ত করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চিত্র নায়িকা শাবানা, কেশবপুর থেকে নির্বাচিত সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল হালিম, বড়েঙ্গা সম্মিলনী বিদ্যাপীঠের সাবেক প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আবদুস শহীদ, সুমন সাদিক প্রমুখ।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, কেশবপুরের উন্নয়নের জন্যই তিনি নির্বাচন করবেন। নির্বাচিত হতে পারলে কেশবপুরের উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখা হবে। বিশেষ করে রেললাইন স্থাপন, সাগরদাঁড়িতে শপিংমল তৈরি, জলাবদ্ধতা নিরসন, রাস্তাঘাটের উন্নয়নসহ যুবসমাজের কর্মসংস্থানের সার্বিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি আরও জানান, কেশবপুরে আসার আগে তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করে তাঁর অনুমতি নিয়ে এসেছেন। সংবাদ সম্মেলনের পর তিনি বড়েঙ্গা গ্রামে সর্বস্তরের মানুষের উপস্থিতিতে গণসংযোগ শুরু করেন। এ সময় তিনি বাড়ি সংলগ্ন একটি এতিমখানার উদ্বোধন করেন। গণসংযোগে বক্তৃতা করেন, এ. কে. এস. ওয়াহিদ সাদিক, কিংবদন্তী চিত্র নায়িকা শাবানা, সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল হালিম, বড়েঙ্গা সম্মিলনী বিদ্যাপীঠের সাবেক প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আবদুস শহীদ প্রমুখ। চিত্র নায়িকা শাবানা বড়েঙ্গা গ্রামবাসীসহ কেশবপুরের সর্বস্তরের মানুষের নিকট তাঁর স্বামীকে সহযোগীতা করার আহবান জানিয়েছেন।
এ কে এস ওয়াহিদ সাদিক সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে আরও বলেন, ‘প্রতি বছর আমি বাড়িতে এলেও এবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করে তাঁর অনুমতি নিয়ে এলাকায় এসেছি। ইতিপূর্বে প্রধানমন্ত্রী আমাকে বা শাবানাকে এ আসন থেকে সংসদ নির্বাচন করার কথা জানালেও করতে পারেনি। তাই প্রয়াত ইসমাত আরা সাদেকের মৃত্যুতে শূন্য আসনে নির্বাচন করার জন্য আমাদের আসা। এ সময় চলাচলের অনুপযোগী কেশবপুর-বড়েঙ্গা সড়কে উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন করলেও স্থানীয় সংসদ সদস্যদের পরিকল্পনা ও উদ্যোগের অভাবে কেশবপুর অবহেলিত রয়ে গেছে। কেশবপুরবাসির পাশে থেকে আমি এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে চাই। নির্বাচিত হওয়ার পর সাংবাদিকদের নেগেটিভ কিছু লেখার মত কোন কাজ করবো না। এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে সাংবাদিকদের সাথে নিয়মিত মতবিনিময় করা হবে।
এরপর তাঁর বাসভবনের আঙ্গিনায় সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল হালিমের সভাপতিত্বে এক আলোচনা অনুষ্ঠানে সদ্য প্রয়াত সংসদ সদস্য ও সাবেক জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেকের স্মরণে দাঁড়িয়ে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এ সময় আগতদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেয়ে আমি নির্বাচিত হলে কেশবপুর এলাকার উপর দিয়ে রেললাইন স্থাপন, সাগরদাঁড়িতে শপিংমল তৈরি, জলাবদ্ধতা নিরসন, রাস্তাঘাটের উন্নয়নসহ যুবসমাজের কর্মসংস্থানের সার্বিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
অনুষ্ঠানে কিংবদন্তী চলচ্চিত্র অভিনেত্রী শাবানা বলেন, ‘আমি শিল্পী মানুষ, শিল্পী হিসেবেই মানুষের মনে বেঁচে থাকতে চাই। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বার বার অনুরোধ করার পরও আমি নির্বাচন না করে আমার স্বামীর পাশে থেকেই তার জন্য নির্বাচনে কাজ করবো। আমার স্বামী সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে এই এলাকার উন্নয়ন হবে, জনগণের মঙ্গল হবে। আমি তার পাশে থেকে সহযোগিতা করবো।’
উল্লেখ্য, গত ২১ জানুয়ারি এ আসনের সংসদ সদস্য সাবেক জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক মৃত্যুবরণ করলে আসনটি শূন্য হয়।






Related News

Comments are Closed