Main Menu

সোনারগাঁয়ে দিনমজুরকে হত্যা ৬ জনকে আসামী করে মামলা

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে জমি সংক্রান্ত ও পারিবারিক বিরোধের জের ধরে আব্দুস সালাম (৩৫) নামে এক দিনমজুরকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (১ জানুয়ারী) বিকেলে বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়ন পরিষদের পেছন থেকে মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যায়।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারী) সকালে নিহতের স্ত্রী রাহিমা আক্তার বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার পর থেকে আসামীরা পলাতক রয়েছে।অভিযুক্তরা হল, আবু কালাম, শফিকুল ইসলাম, শরিফ, বোন রহিমা, ভাতিজা রনি, জা মাজেদা বেগম।

মামলা সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে হামছাদী এলাকার লতিফ মিয়ার ছেলে আব্দুস সালামের সাথে তার ভাইদের জমি সংক্রান্ত ও পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিলো। গত এক মাস আগে তাদের বাড়ি থেকে তার ভাইয়েরা তাকে বের করে দেয়। পরে আব্দুস সালাম তার স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে শ্বশুর বাড়িতে আশ্রয় নেয়।

আব্দুস সালামের ছেলে ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি হওয়ার জন্য বুধবার সকালে ওই বাড়ি থেকে জন্ম নিবন্ধন পত্র আনার জন্য বাড়িতে গেলে ওই ছেলেকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। পরে আব্দুস সালাম বিকেলে ছেলের জন্ম নিবন্ধন পত্র আনে যায়। পরে বৈদ্দেরবাজার ইউনিয়ন পরিষদের পেছনে আব্দুস সালাম অজ্ঞান অবস্থায় পরে থাকে। খবর পেয়ে তার আত্মীয় স্বজন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। পথে তার মৃত্যু হয়।

নিহত আব্দুস সালামরে স্ত্রী রাহিমা বেগমের দাবি, দীর্ঘদিন ধরে আমার ভাসুর ও জা’দের বাড়ির জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ বিরোধের জের ধরে আমাদের বাড়ি থেকে বের করে দেয়। আমরা আমার বাবার বাড়িতে আশ্রয় নেই। আমার ছেলেকে সকালে ভর্তির জন্য জন্ম নিবন্ধন পত্র আনার জন্য বাড়িতে পাঠালে তারা আমার স্বামী বা আমাকে গিয়ে নিয়ে আসতে বলে। পরে আমার স্বামী বিকেলে গেলে তাকে হত্যা করে।

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।






Related News

Comments are Closed