Main Menu

সিলেটে নৌকা মঞ্চ আ:লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের মিলনমেলা

.হাফিজুল ইসলাম লস্কর, সিলেট :: সিলেট নগরীর ইতিহ্যবাহী আলীয়া মাদ্রাসা মাঠে নৌকার আদলে ৬০ ফুট লম্বা মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক মহা-সম্মেলনকে কেন্দ্র করে। দীর্ঘ ৮ বছর পর আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১২টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে দিনব্যাপী কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়েছে। কাউন্সিলের প্রধান অতিথি আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি মঞ্চে আসন গ্রহণ করেছেন। সেই সাথে মঞ্চে আসন গ্রহন করেছেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। ত্রি-বার্ষিক মহা-সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত রয়েছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি।
ত্রি-বার্ষিক মহা-সম্মেলনে উদ্বোধনের পর আনুষ্টানিক কার্যক্রম শুরু হয় সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট লুৎফুর রহমানের সভাপতিত্বে, সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী ও মহানগরের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদের যৌথ সঞ্চালনায় মাধ্যমে। মহা-সম্মেলনের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য প্রধান করেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।
উক্ত মহা-সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, সদস্য অধ্যাপক রফিকুর রহমান, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এমপি এবং প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি। 
এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে মঞ্চে আরো উপস্থিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ইনাম আহমদ চৌধুরী, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নেছার আহমদ এমপি, সাধারণ সম্পাদক মিছবাহুর রহমান, হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু জাহির এমপি, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ খান এমপিসহ সিলেট বিভাগ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।
সিলেট আওয়ামীলীগের জেলা ও মহানগরের ত্রি-বার্ষিক মহা-সম্মেলন উপলক্ষে আলীয়া মাদ্রাসার তৈরী নৌকা মঞ্চ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের মিলনমেলায় পরিনত হয়েছে। তথাপিও আওয়ামীলীগের সাধারন নেতা কর্মী হতাশ প্রধানমন্ত্রী ও সভানেত্রী শেখ হাসিনা না আসায়।






Related News

Comments are Closed