Main Menu

কালীগঞ্জ সরকারী মাহতাব উদ্দীন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর।

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ সরকারী মাহতাব উদ্দীন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদ মন্ডলকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। মিথ্যা তথ্য প্রদান, ভুয়া শ্রেনী খুলে ছাত্র প্রদর্শন, অবৈধ ভাবে শিক্ষক নিয়োগ ও শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের আপীল ও অরবিট্রেশনের সিদ্ধান্ত প্রতিপালন না করায় কেন তার বেতন ভাতা স্থগিত বা বাতিল করা হবে না এই মর্মে তিন দিনের মধ্যে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (কলেজ-৩) মোঃ আব্দুল কাদের মহাপরিচালকের পক্ষে গত ১৫ অক্টোবর এই চিঠি দেন। চিঠিতে উল্লেখ করা হয় সরকারী মাহতাব উদ্দীন কলেজের অধ্যক্ষ ড. মাহবুবুর রহমানকে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও মহামন্য হাই কোর্ট তার সাময়িক বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার পুর্বক অধ্যক্ষ পদে যোগদান করার নির্দেশ দিলেও আব্দুল মজিদ মন্ডল দায়িত্ব হস্তান্তর করছেন না। এমতাবস্থায় মাউশি ও শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের আদেশ প্রতিপালন না করায় জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা ২০১৮ এর ১৮.১ (গ) ধারা মোতাবেক কেন তার বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তার কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে। প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদ মন্ডল রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে হজ্বব্রত থাকাকালে অধ্যক্ষ ড. মাহবুবুর রহমানকে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে সাময়িক বরখাস্ত করেন। এ নিয়ে একাধিক তদন্ত ও আইনী প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। কিন্তু ড. মাহবুবুর রহমানের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ও মহামন্য হাই কোর্টে প্রমানিত হয়নি।






Related News

Comments are Closed