Main Menu

আড়াইহাজারে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা

আড়াইহাজারে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করেছে স্বামী মোবারক হোসেনের বিরুদ্বে এই অিভিযোগ উঠেছে ৮ তারিখ । মঙ্গলবার মধ্য রাতে ওই গৃবধুর বাবা তার মেয়ের গলা কাটা লাশ খাটের উপর পড়ে থাকতে দেখেন।

পরে পুলিশে খবর দিলে গোপালদী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। অভিযুক্ত স্বামীর নাম মোবারক হোসেন (৩৫)। সে নংরসীদি জেলার মাধবদি থানার খাদিমার চর এলাকার আব্দুল খালেকের ছেলে। বিয়ের পর থেকে স্ত্রী পরিবার নিয়ে আড়াইহাজারে শশুর বাড়িতে থাকতেন।

সাহেলা আক্তার আড়াইহাজার উপজেলার গোপালদী পৌরসভার উত্তরকলা গাছিয়া এলাকার হাসেম আলীর মেয়ে। খবর পেয়ে বুধবার সকালে স্থানীয় গোপালদী তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

নিহতের পরিবারের দাবী সাহেলার স্বামী মোবারক মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১০টা থেকে ১টার মধ্যে ঘুমন্ত অবস্থায় যেকোনো সময় নিজের শোবার ঘরের খাটে শ্বাসনালি কেটে তাকে হত্যা করেছে। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী পলাতক রয়েছে।

নিহতের বোন পারভীন আক্তার জানান, বিয়ের পর থেকেই স্বামী-স্ত্রীর সঙ্গে নানা বিষয় নিয়ে মনোমালিন্য চলছিল। বিভিন্ন সময় তাকে মারধর করা হতো। তিনি দীর্ঘদিন ধরেই তাকে হত্যার হুমকী দিয়ে আসছিল। সংসারে কলহের জেরে সাহেলার শোবার ঘরের খাটে শ্বাসনালি কেটে তাকে হত্যা করা হয়েছে। তাদের দাম্পত্য জীবনে এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

গোপালদী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই নাসির আহমেদ লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধারণা করা হচ্ছে নিহতের স্বামী হত্যাকান্ডের এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারেন। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা পক্রিয়াধীন রয়েছে।






Related News

Comments are Closed