Main Menu

বিয়ের প্রলোভনে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ ধর্ষককে আটক করলে ছিনিয়ে নিয়ে যায় ছাত্রলীগ

সিদ্ধিরগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুুতি চলছে। মঙ্গলবার বিকেল ৫’টায় এলাকাবাসী ধর্ষককে আটক করলে স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতারা ধর্ষককে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে ধর্ষিতার মা বিথি মামলা করতে থানায় যায়। ধর্ষক পলাতক। ঘটনাটি ঘটে নাসিক ৩নং ওয়ার্ড মাদানীনগর আকিজ টাওয়ারের ৫’তলায়।
ধর্ষিতার মা বিথি জানায়, আমার মেয়ে মনি(ছদ্দ নাম) আলী আকবর স্কুলের ১০’শ্রেনীর ছাত্রী সাকুলে যাতায়াতের পথে আমার মেয়েকে নাসিক ৩নং ওয়ার্ড আদর্শনগর এলাকার ইউনাইটেড টাওয়ারের বসবাসকারী ফারুকের ছেলে শাহারিয়ার প্রায় সময় বিরক্ত করতো। এক পর্যায়ে ২’বছর পূর্বে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গতকাল আমার বাসা নাসিক ৩নং ওয়ার্ড মাদানীনগর আকিজ টাওয়ারের ৫’তলায় শাহারিয়ার জোর পূর্বক প্রবেশ করে। এসময় আমার মেয়েকে একা পেয়ে ঘড়ের দরজা বন্ধ করে ধর্ষণ করে। আমি বাসায় এশে দরজা বন্ধ পেয়ে দরজা খুলতে বলি। আমার মেয়ে দরজা খুলে কাদতে থাকে। কারন জানতে চাইলে সে বলে ঘড়ের ভিতরে থাকা শাহারিয়ার আমাকে ধর্ষন করে। আমার মেয়ে আরো জানায়, শাহারিয়ার আমাকে বিয়ে করবে বলে বলেছে। পরে আমি শাহারিয়ারকে ঘড়ে আটক করে বিয়ের কথা বলি। বিয়েতে রাজি না হওয়ায় আমি নাসিক ৩নং ওয়ার্ড কমিশনার শাহজালাল বাদলকে ফোন দিলে তিনি থানায় যোগাযোগ করতে বলে। এসময় নাসিক ৩নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা হাবিবুর রহমান হাবিব ১৫/২০’জন যুবক নিয়ে আমার বাসায় প্রেবেশ করে। এসময় আমাকে কোন কথা বলার সুজুক না দিয়ে ধর্ষক শাহারিয়ারকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয় কমিশনারের সাথে যোগাযোগ করে থানায় আসি। আমি অভিযোগ দিয়েছি, মামলা দায়েরের প্রস্তুুত চলছ। এ ব্যাপারে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি(তদন্ত) আজিজুল হক জানায়, ধর্ষণ নয় ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগ পেয়েছি। ######






Related News

Comments are Closed