Main Menu

ডিমলায় অগ্নিকান্ডে কোটি টাকার ক্ষতি

মোঃ জাহিদুল ইসলাম, ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধি :অগ্নিকান্ডে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার সর্ববৃহৎ সুটিবাড়িহাটের ১৭টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালামাল ও একটি ডেন্টাল ক্লিনিকের সকল যন্ত্রপাতি ও আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়েছে। সোমবার ভোরের এই অগ্নিকান্ডে ক্ষতির পরিমান প্রায় এক কোটি টাকা বলে দাবি করেছে ক্ষতিগ্রস্থরা।
ব্যবসায়ীরা জানায় হাটের পশ্চিম প্রান্তে ফরহাদ হোসেনের খাবারের হোটেলের চুলা থেকে আগুনের সুত্রপাত ঘটে। তার হোটেলের চুলার উপর খড়ি শুকানোর জন্য রাখা ছিল। সে সময় হোটেল ভেতরে ঘুমাচ্ছিল হোটেলের কিশোর কর্মচারী নজরুল ইসলাম। এলাকার লোকজন বুঝতে পেরে তাকে হোটেলের ভেতর থেকে উদ্ধার করে। ওই আগুনে হোটেলের পাশে থাকা ডেন্টাল সার্জন জহিরের ক্লিনিকের সকল যন্ত্রপাতি আসবাবপত্র ও বিপুল পরিমান ঔষধ, নবিউল ইসলামের দোকানের নতুন ৩৫টি বাইসাইকেল ও যন্ত্রাংশ সহ মোট ১৭টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও মালামাল সর্ম্পূন পুড়ে ছাই হয়। এতে প্রায় কোটি টাকার ক্ষতি হয়। এলাকাবাসী দাবী হোটেল ব্যবসায়ী ফরহাদ হোসেন শিশু শ্রমিক নজরুলকে দিয়ে চুলার উপরে খড়ি শুকানো নিয়ে আগুনের সুত্রপাত হয়। ঘটনার পর থেকে ফরহাদ হোসেন গা ঢাকা দিয়েছে।
ডিমলা ফায়ার সার্ভিস স্টেশন ইনচার্জ আবু বকর সিদ্দিক জানান ডিমলা ফায়ার সার্ভিস ও এলাকাবাসী অশান্ত পরিশ্রম করে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনায় ওই হাটে অবস্থিত পূবালী ব্যাংকসহ চারশতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রক্ষা পায়। তিনি জানান প্রাথমিকভাবে তদন্তে হোটেলের চুলার উপর রাখা ছিল। সেখান থেকে আগুনের সুত্রপাত ঘটে। ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল নাহার বলেন, হোটেল ব্যবসায়ী ফরহাদ হোসেনের অবহেলায় আগুনের সুত্রপাত হলে পুলিশ তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।






Related News

Comments are Closed