Main Menu

দক্ষিণখানে ওয়ার্ড ছাএ লীগের সাধারণ সম্পাদকের হাতে কিশোরী ধর্ষণ।

মোঃহাসানঃরাজধানীর দক্ষিণখান থানাধীন মোল্লারটেক উদয়ন স্কুল রোডের হাজী ইলিয়াসের বাড়ির ভাড়াটিয়া শেখ ফরিদের বড় মেয়ে ফারজানা (১৪)।কিশোরী কসাই বাড়ির সানফ্লাওয়ার স্কুলের দশম শ্রনীর ছাএী। দক্ষিণখান ৪৮ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক আল নাহিয়ান নিরবের সাথে ফেইজবুকের মাধ্যমে প্রমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত ০৮/০৯/২০১৯ ইং তারিখ ধর্ষক নিরব ফারজানাকে মুঠোফোনে ফোন দিয়ে দক্ষিণখান কেসি হাসপাতালের সামনে আসতে বলে। ফারজানা তার ছোট ভাইকে নিয়ে কেসি হাসপাতালের সামনে আসলে, নিরব তার বানানো ফুপু মিনার বাসায় নিয়ে যায় এবং জোর পূর্বক ফারজানার ছোট ভাইএর সামনে ফারজানাকে ধর্ষণ করে। উক্ত বিষয় নিয়ে গত ১১/০৯/২০১৯ ইং তারিখ দক্ষিণখান থানায় আল নাহিয়ান নিরবের বিরুদ্ধে নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয় নং৩১।ঐ বাড়ির চতুর্থ তলার ভাড়াটিয়া মাফুজুর রহমানের সহ -ধর্মীন মিতু জানান। ঐ দিন আমরা কেউ বাসায় ছিলাম না। মিনার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন,মিনা পার্লারে কাজ করে। তার সাথে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকম পুরুষদের দেখা যায়।মেয়ে হিসেবে ভাল না। তার বাসায় সব সময় লোকজনের আনাগোনা থাকে।উক্ত বিষয় বাড়ির নিরাপত্তা কর্মী জামিলের কাছে জিজ্ঞাসা করলে জামিল ঘটনা সত্যতা আছে বলে জানান। অনুসন্ধানে আরো কিছু তথ্য বেড়িয়ে আসে। দক্ষিণখান থানার সেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক নয়ন মিয়ার ছেলে আল নাহিয়ান নিরব। বিয়ষটি দক্ষিণখান থানার ছাএ লীগের সভাপতি শামীম আহম্মদের বাপ্পীর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান এই সর্ম্পকে আমি বেশি কিছু জানিনা।যারা তাকে নেতা বানিয়েছেন তাদের বলেন। বাপ্পী আরো জানায়, সাবেক দক্ষিণখান থানার ছাএ লীগের সভাপতি খায়রুল আলম লিটন ও এম এ হালিম তাকে ৪৮ নং ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদকের জন্য আল নাহিয়ান নিরবের জন্য সুপারিশ করে এবং পদ এনে দেয়।দক্ষিণখান থানা জানায় আমরা আসামীকে ধরার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আশাকরি খুব দ্রুত পেয়ে জাব।






Related News

Comments are Closed