Main Menu

তালাকের খবর পেয়ে স্ত্রীর আত্মহত্যা

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে প্রবাসী স্বামী কর্তৃক তালাকের কথা শোনার পর সোহাগী আক্তার নামের এক গৃহবধূ গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে সোনারগাঁ উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের সোনাখালি এলাকায়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সোহাগীর লাশ উদ্ধার করে জেলা হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় সোহাগীর শশুর ইব্রাহিমকে আটক করেছে পুলিশ।এ ঘটনায় সোহাগীর মামা আল আমীন বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

সোহাগীর স্বজনরা জানান,গত আট বছর আগে বন্দর উপজেলার কেওঢালা গ্রামের ইব্রাহিমের ছেলে মামুনের সাথে বিয়ে হয় সোহাগীর। বিয়ের পর থেকে শশুর বাড়ীর লোক জনের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে একমাত্র ছেলেকে নিয়ে অন্যত্র বসবাস শুরু করেন সোহাগী। এছাড়া দীর্ঘ দিন ধরে সোহাগী ও স্বামী মামুনের সাথেও তার দাম্পত্য কলহ চলছিল। এ নিয়ে সামাজিক ভাবে একধিকবার সালিশ-বিচারও হয়। গতকাল সোমবার সকাল ১০ টায় সোহাগীর মামা শশুর মনির হোসেন (৬২) তার স্ত্রী হালিমা (৫০), মো: ইব্রাহিম ও শরীফা সহ ৬/৭ জন সোহাগীর বাড়ী সোনাখালী এসে তার স্বামী মামুন বিদেশ থেকে ইমুর মাধ্যমে তাকে তালাক দিয়েছে বলে জানান এবং তালাক নামা সোহাগীর কাছে দেন। গত ৯ সেপ্টেম্বর মামুন বিদেশ থেকে ইন্টারনেট ইমুর মাধ্যমে সোহাগীকে তালাক দিয়ে সে পত্র সোহাগীর কাছে পৌঁছায়। তালাকপত্র পেয়ে স্বামীর সঙ্গে সোমবার রাতে এ বিষয় নিয়ে সোহাগীর ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে ক্ষোভে অভিমান করে রাতে সোহাগী তার ছেলেকে ঘুমিয়ে রেখে বাসায় ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

এ ঘটনায় সোহাগীর মামা বাদী হয়ে সোহাগীর আত্মহত্যার প্ররোচনায় দায়ীদের বিরুদ্ধে সোনারগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।






Related News

Comments are Closed