Main Menu

সাঁওতালদের মধ্যে চিনিকলের শ্রমিকদের সংঘর্ষ ॥ আহত ৩

গাইবান্ধা প্রতিনিধি :রংপুর চিনিকলের সাহেবগঞ্জ ইক্ষু খামারের বিরোধপূর্ণ জমি স্থানীয় প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে হালচাষ করতে গেলে চিনিকল শ্রমিক ও সাঁওতালদের মধ্যে বুধবার আবারও এক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
জানা গেছে, বিরোধপূর্ণ ওই জমিতে চাষাবাদ না করার জন্য স্থানীয় প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা ছিল। নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে রংপুর চিনিকলের শ্রমিকরা ট্রাক্টর নিয়ে ইক্ষুখামারের জমি চাষ করতে যায়। এসময় সাঁওতালরা ওই জমি তাদের বাপ-দাদার সম্পত্তি দাবি করে জমি চাষে বাধা দেয়। ফলে চিনিকলের শ্রমিকদের সাথে সাঁওতালদের মারপিটের ঘটনা ঘটে। এতে ভূমি উদ্ধার কমিটি সমর্থিত ৩ ব্যক্তি আহত হয় বলে দাবি করা হয়। সাহেবগঞ্জ-বাগদাফার্ম ভূমি পূনরুদ্ধার সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ডা. ফিলিমন বাস্কে অভিযোগ করেন, স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে দু’পক্ষের প্রতিনিধিদের ডেকে বলা হয়েছিল যেহেতু জমিগুলো নিয়ে বিরোধ চলছে সেহেতু বিরোধ নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কেউ যেনো ওই জমিতে না যায়। চিনিকল কর্তৃপক্ষ প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বার বার ওই জমিতে চাষাবাদের চেষ্টা করে আসছে। কিন্তু বিরোধপূর্ণ ওই জমিতে চিনিকল শ্রমিকরা আবারো চাষ করতে গেলে সংগত কারণে সাঁওতালরা তাদের বাধা দেয়। এসময় চিনিকলের শ্রমিকরা সাঁওতালদের পক্ষের লোকজনকে মারপিট করে। এতে চুনু মিয়া, সবুজ মিয়া ও জাকারিয়া ইসলাম নামে ৩ জন আহত হয়।
এদিকে চিনিকল শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল ওই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ৩টি ট্রাক্টর নিয়ে সাহেবগঞ্জ ইক্ষু খামারের জমি চাষ করা হচ্ছিল। এসময় হঠাৎ করে সাঁওতালদের কিছু লোক এসে ট্রাক্টর চালকদের মারপিট করে। এসময় তাদের মারপিটে ট্রাক্টরের দুই চালক পালিয়ে গেলেও নুরুল ইসলাম নামে অপর এক চালক আহত হয়। তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
মারপিটের বিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি একেএম মেহেদী হাসান বলেন, চিনিকল কর্তৃপক্ষ ও সাঁওতালদের পক্ষ থেকে পৃথক পৃথক মারপিটের অভিযোগ করা হয়েছে। তবে কোন পক্ষ থেকেই মামলা করা হয়নি। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয়কে বুঝিয়ে জমি থেকে ট্রাক্টর তুলে দেয়। সেখানকার পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে।






Related News

Comments are Closed