Main Menu

বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল , লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা মানুষের মনকে সচেতন করে তুলে —— নুরুল আমিন রুহুল এমপি

মনিরা আক্তার মনি : মতলব উত্তর উপজেলার প্রস্তাবিত শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে উপজেলা পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্ণামেন্ট-২০১৯ এর ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
খেলার প্রথম পর্যায়ে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্ণামেন্টে নাছিরারকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বনাম ষাটনল বাজার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। টাইব্রেকারে ২-১ গোলে নাছিরারকান্দি সরকারি প্রাথমিক চ্যাম্পিয়ন হয়।
খেলার দ্বিতীয় পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু প্রাথমিক বিদ্যালয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে ৮৯নং নাউরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বনাম দক্ষিণ ব্যাসদী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। এতে গোল শূন্য খেলা শেষ হলে, খেলা গড়ায় ট্রাইব্রেকারে। ট্রাইব্রেকারে নাউরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় উপজেলা পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হয়।
খেলায় রেফারীর দায়িত্ব পালন করেন মো. জসিম উদ্দিন, সহকারী রেফারী ছিলেন- ফরিদ উদ্দিন ও আশরাফুল আলম।
রবিবার (২৮ জুলাই) বিকেলে উপজেলা শিক্ষা অফিসের আয়োজনে, উপজেলার শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে উপজেলা পর্যাযয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০১৯ এর ফাইনাল খেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা অফিসার মাহফুজ মিয়ার পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট মো. নুরুল আমিন রুহুল।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, উপজেলা পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্ণামেন্ট ধরণের খেলার আয়োজনের মাধ্যমে মতলব’সহ সারা বাংলাদেশে অগ্রণী ভূমিকা রাখবে। এসব খেলাধুলার মাধ্যমে একদিন বাংলাদেশ জাতীয় দলের খেলোয়াড় তৈরি হবে। তারা ভালো খেলার মাধ্যমে বাংলাদেশকে বিশ্বমঞ্চে আরও শক্তিশালী করে তুলবে। লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা মানুষের মনকে সচেতন করে তুলে। খেলাধুলা সমাজের অপরাধ মূলক কর্মকান্ড থেকে যুবসমাজকে দূরে রাখে। সুস্থভাবে জীবন-যাপন করতে খেলাধুলার বিকল্প নেই। খেলাধুলার মাধ্যমে মন তাকে উৎফুল্ল। যার ফলে বৃদ্ধি পায় শিক্ষার হার। এ ধরনের খেলাধুলার আয়োজন করে আমাদের ভবিষৎ প্রজন্মকে সুস্থ, সবল ও সৎ পথে রাখা যায়। তাই দেশের খেলাধুলাকে বহুদূর এগিয়ে নিতে সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এসব খেলাধুলায় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।
তিনি আরো বলেন, দেশে এক শ্রেণীর লোকেরা গুজব ছড়িয়ে যাচ্ছে। তাই কেহ গুজবে কান দিবেন না।
খেলায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ইকবাল হোসেন ভূঁইয়া।
উপস্থিত ছিলেন, ভাইস চেয়ারম্যান মোতাহার হোসেন খান সুফল, সহকারী কমিশনার ভূমি শুভাশিস ঘোষ, অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. ফারুক হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, শহিদ উল্লাহ প্রধান, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান প্রধান, ফতেপুর পশ্চিম ইউপি চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সাহাবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তার হোসেন, উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিএম ফারুক, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেওয়ান জহির, সাধারণ সম্পাদক কাজী শরীফ, জেলা যুবলীগ নেতা শাখাওযাত হোসেন গাজী, যুবলীগ নেতা রেফায়েত উল্লাহ দর্জি, কাজী হাবিবুর রহমান, পৌর আ.লীগ নেতা হাছান কাইয়ুম চৌধুরী, রতন ফরাজী, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাতক একেএম আজাদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট মহসিন মিয়া মানিক, জেলা ছাত্রলীগের জহিরুল ইসলাম চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক আবদুর রব প্রধান, সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মিরাজ খালিদ, এডভোকেট জসিম উদ্দিন, আশরাফুল আলম মিলন, মতলব ডিগ্রি কলেজ সাধারণ ছাত্র-ছাত্রী সংসদের সাবেক জিএস রহমত উল্লাহ চৌধুরী, এমপির সহকারী এডভোকেট লিয়াকত আলী সুমন, যুবলীগ নেতা নূরে আলম, লিয়াকত আলী বাদল’সহ উপজেলার বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষিকা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ’সহ বিভিন্ন নেতা কর্মী। পরিশেষে বিজয়ী ও রানার্স আপ দলের মধ্যে ট্রফি তুলে দেন অতিথি বৃন্দ।






Related News

Comments are Closed