Main Menu

ছাত্রীদের ধর্ষণের অভিযোগে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার -বড় হুজুর

ফতুল্লা প্রতিনিধি: ফতুল্লা মডেল থানার ভূইগড় এলাকায় র‌্যাব-১১’র অভিযান। শনিবার দুপুরে দারুল হুদা আল ইসলামী মহিলা মাদ্রাসায় অভিযান চালানো হয়। একাধিক ছাত্রীকে ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির অভিযোগে মুফতি মোস্তাফিজুর রহমানকে গ্রেফতার করে। তিনি ওই প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ও অধ্যক্ষ (বড় হুজুর)।
র‌্যাব-১১ সিপিএসসি’র কোম্পানি কমান্ডার মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব জানান, দারুল হুদা মহিলা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ও বড় হুজুর মোস্তাফিজুর রহমান একাধিক ছাত্রীকে ধর্ষণ ও যৌন হয়রানি করেছেন এমন একটি অভিযোগ আমরা পাই। অভিযোগের তদন্তে এসে আমরা প্রাথমিকভাবে অভিযোগের সত্যতা পাই। আমরা চারজন ছাত্রীর ব্যাপারে জানতে পেরেছি যাদের তিনি যৌন হয়রানি ও শ্লীলতাহানি করেছেন। ভিক্টিমদের বয়স ১০-১৬’বছরের মধ্যে। একই সাথে কিছু মোবাইল রেকর্ড পেয়েছি যার ভিত্তিতে ঘটনার সত্যতা পাই। আমরা তাকে আটক করেছি। আরো তদন্ত ও জিজ্ঞাসাবাদের পর বিস্তারিত জানা যাবে। অভিযোগের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, এর আগেও মোস্তাফিজুরের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠলে স্থানীয়ভাবে বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়া হয়। তবে এবার ভুক্তভোগীরা সরাসরি র‌্যাবের সাথে যোগাযোগ করলে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃত মোস্তাফিজুর রহমান নেত্রকোনা জেলার লক্ষ্মীগঞ্জের কাওয়ালি কোনা গ্রামের মো. ওয়াজেদ আলীর ছেলে। গত ছয় বছর যাবৎ তিনি মাদ্রাসাটি পরিচালনা করছেন এবং মাদ্রাসায় পরিবার নিয়েই থাকতেন। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।






Related News

Comments are Closed