Main Menu

জমি কিনে বিপাকে একাধিক মামলার শিকার আবু জাহের গং


মতলব প্রতিনিধি: চিকিৎসার ব্যায়ভার মেটাতে পৈত্রিক সম্পত্তি আপন বড় ভাইয়ের কাছে বিক্রির করতে চেয়েছিলেন অসহায় আঃ মান্নান। কিন্তু সম্পত্তি নেই বলে বড় ভাই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলে বেকায়দায় পড়েন নিঃসন্তান আঃ মান্নান ও তার স্ত্রী। পরে এলাকাবাসীর কথায় জমি ক্রয় করেন আবু জাহেরগং। আর এই কারণে ওই বড় ভাইয়ের একাধিক মিথ্যা মামলার শিকার হচ্ছেন আবু জাহেররা।
সরেজমিনে জানা যায়, মতলব পৌরসভার দগরপুর এলাকার মৃত আঃ গণি প্রধানের ছেলে আব্দুল মান্নান। পারিবারিক ভাবে বিয়ে করেছিলেন জাহানারা বেগমকে। দাম্পত্য জীবনে কোন সন্তান না থাকলেও দু’জনের সংসার ভালোই চলে যাচ্ছিল। এরই মাঝে একদিন পৈত্রিক সম্পত্তি বিরোধের জের ধরে দগরপুর বাজারে প্রকাশ্যে আঃ মান্নানকে মারধর করেন বড় ভাই আঃ রব। বয়স্ক অবস্থায় ভাইয়ের হাতে মার খেয়ে স্ট্রোক করে অসুস্থ হয়ে পড়েন আঃ মান্নান। স্বামীর অসুস্থার মধ্যেই সড়ক দুর্ঘটনায় পা ভাঙ্গে স্ত্রী জাহানারার। উভয়ের চিকিৎসা ব্যায় মেটাতে অসহায় হয়ে পড়ে তারা। চিকিৎসার জন্য আরো টাকার প্রয়োজন হলে ওই দম্পতি এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে জমি বিক্রির প্রস্তাব করেন আঃ রবের কাছে। কিন্তু আঃ রব তাদের কোন জমি নেই বলে সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়। এদিকে চিকিৎসার জন্য টাকার প্রয়োজন হলে এলাকাবাসীর পরামর্শে একই বাড়ির আবু জাহের গং অসহায় দম্পতি পৈত্রিক জমি ক্রয় করেন। আর এই জমি ক্রয়ের কারণে একাধিক মিথ্যা মামলার শিকার হয়েছেন তারা।
সাম্প্রতি, ওই জমি ক্রয় করাকে কেন্দ্র করে আবু জাহের ও আঃ রবের মধ্যে চলা বিরোধ মেটাতে উভয়রে সামনে প্রস্তাব রাখেন স্থানীয় হুমায়ূন কবির নামের এক ব্যক্তি। বিরোধ মেটানো প্রস্তাবকে কেন্দ্র করে গত এপ্রিল মাসে দগরপুর বাজারে উভয় পক্ষের মধ্যে তর্কবিতর্ক বাধে। তর্কের এক পর্যায়ে আঃ রব পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত প্রাপ্ত হন। আর এই আঘাতকে পুঁজি করে আঃ রব এলাকাবাসীর কথা অগ্রাহ্য করে আবারো আবু জাহেরগংদের বিরুদ্ধে মামলা করেন, যা চাঁদপুর আদালতে চলমান রয়েছে।
এই নিয়ে অসহায় দম্পতিরা বলেন, তিনি (আঃ রব) একটা দুষ্ট লোক। আমাদের দুরাবস্থায় তার কাছে জমি বিক্রি করতে চেয়েছিলাম, কিন্তু রাখেনি। যারা রেখেছে তাদেরকে শুধু শুধু মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।
চলমান মামলার স্বাক্ষী রেনু বেগম বলেন, আমিতো ঘর থেকেই বের হয়নি, ওরা আমাকে স্বাক্ষী মানল কেন? আরেক স্বাক্ষী টুকু ফরাজী বলেন, আমিতো মামলার বাদীকেই চিনি না। মামলার ঘটনা সর্ম্পকে ওই দিন দগরপুর বাজারে বাজার করতে আসা পৈলপাড়া গ্রামের নুরু প্রধান, রিক্সাচালক সফিক বলেন, ‘তাদের তর্কবির্তক হওয়ার ঘটনা আমরা দেখেছি। ওই সময় আবু জাহের ডাটা দিয়ে রবকে দুটি বাড়িদেয়। ওই সময় তিনি পড়ে গিয়ে কপালে আঘাত পায় ’
মামলা শিকার আবু জাহেরগংরা বলেন, এলাকাবাসীর কথায় অসহায় আঃ মান্নানের জমি কিনে একের পর এক মিথ্যা মামলার শিকার হয়েছি। সাম্প্রতি ঘটে যাওয়া তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আঃ রব আবারো আমাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে আমাদের হয়রানি করছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের সু-দৃষ্টি কামনা করছি।






Related News

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.