Main Menu

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ১৯’পরিবহন চাঁদাবাজ গ্রেফতার


সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগরে অবস্থিত র‌্যাব-১১’র বিশেষ অভিযান। আসন্ন ঈদ উল ফিতরকে কেন্দ্র করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পরিবহন সেক্টরে নৈরাজ্য রোধে পরিবহণ সেক্টরের ১৯’চাঁদাবাজ গ্রেফতার। এসময় গ্রেফতাকৃত চাঁদাবাজাদের নিক থেতে চাঁদাবাজীর নগদ ১’লাখ ৬’হাজার টাকা ও ১৮’টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।
গতকাল সোমবার দুপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কাঁচপুর ব্রীজের পাশে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১১ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক অতি: পুলিশ সুপার আলেপ উদ্দিন জানান, গত ২’জুন দিবাগত রাত থেকে ৩’জুন সকাল পর্যন্ত ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের শিমরাইল মোড় (চিটাগাং রোড), কাঁচপুর ও মদনপুর এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজ চক্রের ১৯’জনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা দীর্ঘদিন ধরে মহাসড়কে চাঁদাবাজি ও যাত্রী হয়রানি করে আসছে। তারা আসন্ন পবিত্র ঈদ উল ফিতরকে সামনে রেখে যাত্রী, সাধারণ মানুষ এবং বাস, অটোরিকশাসহ বিভিন্ন পরিবহনে চাঁদাবাজি করে আসছে। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ও গোয়েন্দা নজরধারির প্রেক্ষিতে অভিযান পরিচালনা করে মহাসড়কে চাঁদাবাজি করার সময় তাদের গ্রেফতার করা হয়। এসময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আলেপ উদ্দিন বলেন, চাঁদাবাজরা কোন রাজনৈতিক দলের হলেও তাদের কোন ছাড় নেই। চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে র‌্যাবের এই অভিযান ভবিষ্যতেও চলমান থাকবে। গ্রেফতারকৃতরা হলো, মো. মোশারফ (৩১), শামীম (৩৫), মো. রাব্বী ওরফে বাবর (৩১), মো. খোরশেদ আলম ইমন (৩৫), মো. কাজী এরশাদুজ্জামান ওরফে এরশাদ (৩৪), আব্দুল কাদের ওরফে সুমন (৩৪), মো.জাহাঙ্গীর আলম (৪০), মো. আলমগীর হোসেন (৩২), আব্দুস সালাম (৫০), মো. জিয়াউর রহমান (২৫), মো. মাহফুজুল রহমান (২৫), মো. মহসিন মিয়া (৩০), মো. মুনসুর আলী (৩৮), মো. আরশাদ মোল্লা (৪৭), জহুর আকন্দ (৫২), ওমর ফারুক (৩৩), মো. হুমায়ুন কবির (৩৭), হাসান কাউসার (২৮) এবং মো. মনিরুল ইসরাম (৩০)। তিনি আরো জানান, এ ঘটনায় চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।######






Related News

Comments are Closed