Main Menu

জুয়া খেলতে নিষেধ করায় হামলা


মতলব প্রতিনিধি: জুয়া খেলতে নিষেধ করায় দল বেঁধে বসত ঘরে হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ৩১ মে রাতে মতলব দক্ষিণ উপজেলার কাজিয়ারা গ্রামের খন্দকার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। হামলার খবরে সহকারী পুলিশ সুপার (মতলব সার্কেল) আহসান হাবিব পরদিন (১জুন) সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
সরেজমিনে জানা যায়, ওই গ্রামের খন্দকার বাড়ির সামনের মাঠে গত কয়েক মাস ধরে টাস (কার্ড) খেলার নামে স্থানীয় হাসান মৃধা (৪০), জুলহাস ওরফে জামাই জুলহাস (৩৫), আরমান (২৮) ও সাইম হাওলাদার (২৩)সহ একাধিক ব্যক্তি জুয়া খেলা চালিয়ে আসছে। তাদের এই জুয়া খেলাকে কন্দ্রে করে অনেক বহিরাগত লোকের আনাগোনা বাড়তে থাকে। রমজান মাসে বাড়ির সামনের মাঠে প্রকাশ্যে জুয়া খেলতে নিষেধ করেন খন্দকার বাড়ির গণ্যমান্য ব্যক্তিরা। এই নিয়ে গত ৩১ মে বিকালে ওই জুয়াড়ীদের ফের জুয়া খেলতে নিষেধ করার তারা কিছুটা ক্ষিপ্ত হয়ে চলে যায়। কিন্তু ওইদিন রাতে তারাবি নামাজের পর একই গ্রামের হাসান দেওয়ানজী, নাছির, মাসুদের নেতৃত্বে ওই জুয়াড়ীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে খন্দকার বাড়িতে হামলা করে লুটপাট চালায়। তাদের হামলায় নজরুল ইসলাম খন্দকার (৪৫), আবুল হোসেন (৬০), আল আমিন (২৬) এর বসত ঘরে ব্যাপক ভাংচুরসহ তাদেরও আহত করে সন্ত্রাসীরা। হামলার পর সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেলে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আহতদের মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে চিকিৎসা দেওয়া হয়।
হামলার বিষয়ে আহত নজরুল ইসলাম বলেন, বাড়িতে উঠতি বয়সি যুবক ও ছোট-বড় ছেলে-মেয়ে রয়েছে আর তারা প্রতিদিন প্রকাশ্যে জুয়া খেলা চালিয়ে আসছে। এই নিয়ে তাদের নিষেধ করায় তার দল বেঁধে আমাদের বাড়িতে হামলা ও লুটপাট চালায়। এই নিয়ে মতলব দক্ষিণ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।
অভিযোগের বিষয়ে এসআই হাবিব বলেন, তাদের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে ওসি স্যারের নির্দেশে আজ (২ জুন) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করেছি।






Related News

Comments are Closed