Main Menu

স্বামীর মারধরে শিকার হয়ে অন্তসত্বা গৃহবধুর আত্মহত্যার চেষ্টা


আব্দুল মান্নান খান: স্বামীর মারধরে শিকার হয়ে হালিমা (২২) নামের এক অন্তসত্বা গৃহবধু বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়ে বলে জানা গেছে। গত ২ জুন দুপুরে মতলব দক্ষিণ উপজেলার দৌলতপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
হাসপাতাল ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নারায়নপুর ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামের আলীবর্দিন প্রধানিয়া বাড়ির আক্তার হোসেনে সাথে বিয়ে হয় মতলব পৌরসভার নবকলসের মেয়ে হালিমার। সংসার জীবনে তাদের ঘরে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। এরই মাঝে পুনরায় অন্তসত্বা হন হালিমা।
ঘটনার দিনে তাদের ছোট মেয়েকে ভাত খাওয়ানো নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে তর্কবাধে। তর্কের এক পর্যায়ে আক্তার তার স্ত্রীকে মারধর করলে হালিমা অভিমান করে সকলের অগোচরে ঘরে থাকা কিটনাশক পান করে। পরে অসুস্থ হালিমাকে তার স্বামী ও শ্বশুড় বাড়ির লোকজন দ্রুত মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। হাসপাতালের চিকিৎসক হালিমাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।
হালিমার শ্বাশুড়ি বলেন, নাতিকে ভাত খাওয়ানো নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। বৌকে স্বামী মারতেই পারে, তাই সে এমন কাজ করবে?
এদিকে অন্তসত্বা গৃহবধুর আত্মহত্যার চেষ্টার বিষয়ে তথ্য জানতে গেলে হালিমার ননদ পরিচয় দিয়ে ময়মুনা নামের এক মহিলা তাদের মুঠোফোনের মাধ্যমে নিজেকে মানবাধীকার কর্মী হিসেবে দাবি করে বলেন, এটা কোন ঘটনাই না। প্রয়োজন হলে আমিই সংবাদিক পাঠাতাম।
স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম, তাদের বিষয়ে আমি কোন কথা বলতে চাইনা। তারা তাদের মত থাকতে পছন্দ করে।






Related News

Comments are Closed