Main Menu

এবার বাবার সহযোগিতায় মেয়েকে গণধর্ষণ

আশুলিয়ার জিরাবোতে সৎ বাবার সহযোগিতায় গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক তরুণী। এ ঘটনায় সৎ বাবাসহ ৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। ভুক্তভোগী ওই তরুণীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে।

সোমবার দুপুরে আশুলিয়া থানা পুলিশ এই তথ্য নিশ্চিত করে। এর আগে ভোরে আশুলিয়ার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটকরা হলেন, পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া থানার চরখালী গ্রামের মৃত জব্বার হাওয়ালাদারের ছেলে মো. সজিব হাওলাদার, রংপুরের কাওনিয়া থানার গদাই গ্রামের ওসমান শেখের ছেলে মামুন শেখ, বরিশাল কোতয়ালি থানার হিজলা গ্রামের গগন আলীর ছেলে নুরে আলম, গাইবান্ধার পলাশবাড়ি থানার হরিনাথপুর গ্রামের মো. আমিরুল ইসলামের ছেলে হাবিব। এছাড়া সৎ বাবা তাইজুল ইসলামের বাড়ি গাইবান্ধা জেলার সাদুল্লাহপুর থানার পশ্চিমখামার দশেলী গ্রামে।

ভুক্তভোগীর স্বামী জানান, দুইদিন আগে স্ত্রীকে আশুলিয়ার কাঠগড়া এলাকায় শ্বশুরবাড়িতে রেখে নারায়ণগঞ্জে কাজে যান তিনি। গতকাল খবর পেয়ে ছুটে আসেন। দোষীদের কঠিন শাস্তি চান তিনি।

আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাসুদ জানান, রোববার দুপুরে খালার অসুস্থতার কথা বলে ওই তরুণীকে কৌশলে সৎ বাবা তাইজুলের সহযোগিতায় জিরাবোতে নিয়ে গণধর্ষণ করে ৪ বখাটে। ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। অভিযান চালিয়ে কাঠগড়া ও জিরাবো এলাকা থেকে আসামিদের আটক করা হয়। পরে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আসামিদের আদালতে পাঠানো হয়।






Related News

Comments are Closed