ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে আবারও নিরাপদ সড়কের দাবীতে শিক্ষার্থীদের অবরোধ..!

সু-প্রভাত পরিবহনের বাস চাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহাম্মেদ চৌধুরী পিষ্ট হয়ে নিহতের ঘটনায় দ্বিতীয় দিনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করেছে শিক্ষার্থীরা। গতকাল বুধবার বেলা ১২’টায় এ অবরোধ করেছে শিক্ষার্থীরা। ফলে সড়কের দুই পাশের যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ওসির হস্থক্ষেপে অবরোধ মুক্ত ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়ক।
সড়ক দূর্ঘটনা যেন এখন নিত্যদিনের খবরে পরিনত হয়েছে। কিছুতেই থামছেনা সড়ক দূর্ঘটনা। গত দু’দিন আগে ঢাকায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটির অনার্সের এক ছাত্র সড়ক দূর্ঘনায় নিহত হন। গতকাল বুধবার বেলা ১২’টায় ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়ক ইউ আই ইউ বেসরকারী কলেজের ছাত্র তামিম আহম্মেদ তুরাগের নেতৃত্বে আাদমজী এম ডাব্লিউ কলেজ, সানারপাড় রওশনারা ডিগ্রী কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা সড়কটি অবরোধ করে রাখেন। প্রায় ১’ঘন্টা ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে অবরোধ থাকায় র্দীঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ আসেন। এসময় ছাত্র-ছাত্রীরা নিরাপদ সড়কের দাবীতে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকেন। পরে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি(সার্বিক) মীর শাহীন শাহ্ পারভেজ এবং ওসি (তদন্ত) নজরুল ইসলাম ও ওসি(অপারেশনের) জসিম উদ্দিনের প্রচেষ্টায় ছাত্র-ছাত্রীরা মহাসড়ক থেকে সরে আসেন। সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি(সার্বিক) মীর শাহীন শাহ্ পারভেজ বলেন, ছাত্র-ছাত্রীরা মহাসড়কে অবস্থান নিয়েছে খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে আমরা তাদেরকে বুঝানোর মাধ্যমে সড়ক থেকে সরিয়ে দেই এবং কোন ধরনের অবৈধ পরিবহন যাতে মহাসড়কে চলাচল করতে না পারে সেই বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করি। তিনি আরো বলেন, ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়ক একটি গুরুত্বপূর্ন সড়ক। দেশের যে কোন জেলায় যাতায়াতের জন্য এই সড়কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই সড়কে যানচলাচলে যাতে কোন বাধা বিপত্তি না ঘটে সেই দিকে আমরা তৎপর আছি।






Related News

Comments are Closed