Main Menu

মতলবে স্বামী-স্ত্রীর বিচ্ছেদে বিপাকে দেড় মাসের শিশু

মতলব প্রতিনিধি: পারিবারিক ভাবে বিয়ের দেড় বছরের মাথায় কলহের জের ধরে বিচ্ছেদ হয় স্বামী-স্ত্রীর। আর এতে বিপাকে পড়েছে তাদেরই দেড় মাস বয়সী শিশু কন্যা।
সরেজমিনে জানা যায়, মতলব দক্ষিণ উপজেলার ডিঙ্গাভাঙ্গা গ্রামের নুরু মৌলভীর ছেলে মজিদের সাথে ২০১৭ সালে নভেম্বর মাসে একই গ্রামের খান বাড়ির আঃ করিম খানের নবম শ্রেণি পড়–য়া মেয়ে তহমিনার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই পারিবারিক কলহের মধ্য দিয়ে তাদের সংসারে জন্ম নেয় এক কন্যা সন্তান। কলহের জের ধরে চাঁদপুর আদালতে মামলা করে তহমিনা। তারই স্থানীয় সমাধানের জন্য গত ১৮ মার্চ ইউপি পরিষদ কার্যালয়ে উভয়ের সম্মতিতে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। কিন্তু তাদের এই বিচ্ছেদের কারণে বিপাকে পড়ে দেড় মাস বয়সী ওই শিশু। বিচ্ছেদের কারণে শিশুটির মা সন্তানকে আর লালন-পালন না করার কথা জানান।
এদিকে শিশুর লালন-পালনের দায়িত্ব নিতে অস্বীকৃতি জানানো ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বিস্ময় প্রকাশ করেন। তারা এই শিশুটির দায়িত্ব তার মা’কে নেওয়ার জন্য বারবার অনুরোধ করলেও সে কারো কথা কর্ণপাত করেনি।
তহমিনা বলেন, বিচ্ছেদ যেহেতু হয়েই গেছে তাই এই বাচ্চা আমার কাছে রেখে কী লাভ? আমারও ভবিষ্যত আছে। এদিকে মজিদের বাবা বলেন, আমার পুত্রবধূ ও নাতীকে নিতে রাজি, কিন্তু বৌ কোন কথা শুনছে না।
ইউপি চেয়ারম্যান শহিদ উল্ল্যাহ প্রধান বলেন, আমি ওই শিশুটিকে আমার কোলে নিয়ে তার মায়ের কাছে দিতে চাইলে সে নেয়নি। শিশুর ভবিষ্যতের কথা ভেবে মায়ের কাছেই থাকার দরকার। বিয়ের দেন মোহরের টাকা পরিশোধ করার আগ পর্যন্ত শিশুটি তার মায়ের কাছে থাকবে বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে।






Related News

Comments are Closed