Main Menu

মতলব দক্ষিণে বৃদ্ধার রহস্যজনক মৃত্যু 

মতলব প্রতিনিধিঃ মতলব দক্ষিণ উপজেলার ৫নং উপাদী উত্তর ইউনিয়নের বহরী কাজী বাড়ীতে আমেনা বেগম (৫৫) নামে এক বৃদ্ধা গলায় ফাঁস দিয়ে মৃত্যুবরণ করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে, ১৩ মার্চ রাতে। তবে পরিবারের দাবী তাকে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের স্বামী নাজিম উদ্দিন জানান- প্রতিদিনের মতো ঐ দিন সন্ধ্যায় আমি বাজার থেকে ফিরে এসে ঘরের দরজা বন্ধ পাই। অনেক ডাকাডাকি করেও তাহার কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করি। আমার স্ত্রী আমেনা বেগমকে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলে থাকতে দেখি। আমার ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন দৌড়ে আসে। পরে থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে পোস্ট মর্টেমের জন্য চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করা হয়। নাজিম উদ্দিন আরো জানান, দীর্ঘ বছর ধরে পাশ্ববর্তী বাড়ীর তাফাজ্জল হোসেন নিহতের আমেনা বেগমের বড় ভাইয়ের চার সন্তানের জননী মনিকে ফুসলিয়ে ভাগিয়ে নিয়ে যায়। এ নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ দু’পরিবারের মধ্যে বাকবিতন্ডা চলছিল। এক সময় আমার স্ত্রী আমেনা বেগমের নামে বিভিন্ন সময়ে কুৎসা রটিয়ে পারিবারিক অশান্তি বিরাজ করছে। পরে আমার স্ত্রী রাগে ক্ষোভে গলায় ফাঁস দিয়েছে। এ ব্যাপারে উপাদী উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান মো. শহীদ উল্লাহ প্রধানসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ নিয়ে বসার কথা রয়েছে। থানায় এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে। নিহতের ছেলে নূর আলম, কবির জানান, আমরা তিন ভাই ঢাকার গাজীপুরে ফার্নিচারের ব্যবসা করে আসছি। তাফাজ্জল মিজিসহ আগের ও পরের সংসারের ছেলে কবির ও নবীর বিভিন্ন সময়ে আমাদের বাসায় গিয়ে নানা ধরনের হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে। প্রায় ৭দিন পূর্বে তাহারা আমাদের সংসারে বিভিন্নভাবে ক্ষতি করবে বলে ঢাকার গাজীপুরে আমাদের বাসায় গিয়ে শাসিয়ে আসে। এ বিষয়ে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। এ ব্যাপারে তাফাজ্জল মিয়াজী ও তার ছেলে কবির ও নবীরের সাথে বাড়ীতে গিয়ে ও মুঠো ফোনে যোগাযোগ করতে চাইলেও তাদেরকে পাওয়া যায়নি। মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ এমকেএস ইকবাল হোসেন জানান, লাশ উদ্ধার করে চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। পোস্ট মর্টেম রিপোর্ট আসলে হত্যা না আত্মহত্যা বলা যাবে। নিহতের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই।





Related News

Comments are Closed