Main Menu

অব্যাহতির সিদ্ধান্ত নিতে সময় চান ভিপি নুর

সাধারণ শিক্ষার্থীদের দেওয়া ভোটকে শ্রদ্ধা জানিয়ে ডাকসুর সব পদেই পুনর্নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন সদ্য ভিপি হওয়া নুরুল হক নূর। এমন দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ভিপি পদ থেকে অব্যাহতি নেবেন, নাকি এ পদে শপথ নেবেন সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আরো দু’একদিন সময় চেয়েছেন তিনি।

বুধবার (১৩ মার্চ) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুহসীন হলে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

নুর বলেন, ‘ছাত্রলীগ ছাড়া প্রতিটি ছাত্র সংগঠনই ফের নির্বাচনের দাবি জানিয়েছে। সাধারণ ছাত্রদের প্রতিনিধি হিসেবে আমিও এ দাবির সঙ্গে একমত। আমিও চাই প্রশ্নবিদ্ধ এ নির্বাচনকে বাতিল করে ফের নির্বাচন দেওয়া হোক’।

বর্তমান নির্বাচিত ভিপি হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, যারা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন তারা বললে আমি শপথ নেবো, নয়তো নেবো না। দু’একদিনের মধ্যেই বিষয়টি আপনারা জানতে পারবেন।

‘ডাকসু নির্বাচনের শুরুতেই আমাদের কাছে মনে হয়েছিল এটি একটি ছকের নির্বাচন, আমরা বোঝাতে চেয়েছি এ প্রক্রিয়ায় একটি সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। তারপরেও আমরা নির্বাচনে এসেছিলাম’, বলেন নুর।

ভোটের দিন কুয়েত মৈত্রী হল-রোকেয়া হলে অনিয়মের অভিযোগ তুলে ধরে তিনি বলেন, রোকেয়া হলে অনিয়মের খবর পেয়ে আমরা সেখানে গেলে শোভন ভাইয়ের নেতৃত্বে ‘লেডিগুন্ডারা’ আমার উপর হামলা চালায়। ছেলেদের হলগুলোতে ছাত্রলীগের কর্মীদের লাইনে দাঁড়িয়ে অনর্থক সময়ক্ষেপণ করা হয়েছিল। তাই কলঙ্কিত এ নির্বাচনকে আমরা বর্জন করেছিলাম।

শত কারচুপির পরও আমাকে তারা হারাতে পারেনি। এ পর্যায়ে ছাত্রলীগ ছাড়া প্রতিটি ছাত্র সংগঠন ফের নির্বাচনের দাবি জানিয়ে ভিসিকে তিনদিনের আল্টিমেটাম দিয়েছেন।

সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধি হিসেবে আমিও চাই প্রশ্নবিদ্ধ এ নির্বাচন বাতিল করে প্রতিটি পদে ফের নির্বাচন দিতে হবে। কারচুপির এ নির্বাচনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে বহিষ্কার করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

এ বিষয়গুলো আমরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে জানিয়েছি। তাদের কাছ থেকে ক্লিয়ার মেসেজ পাওয়ার পর সে অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও উল্লেখ করেন ভিপি নুর।






Related News

Comments are Closed