Main Menu

ডাকসু নির্বাচন : ৪২ হাজার ভোটার দেবেন ৩৮টি করে ভোট

প্রায় তিন দশক পর আগামী ১১ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ হবে। এ নির্বাচনে ২৫ পদের বিপরীতে লড়ছেন ২২৯ জন প্রার্থী। হল সংসদে ১৮টি হলে ১৩টি করে পদের বিপরীতে প্রার্থী রয়েছেন মোট ৫০৯ জন। এসব প্রতিদ্বন্দ্বীর বিপরীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮টি হলের ৪২ হাজার ৯২৩ ভোটারকে দুটি ব্যালটে ৩৮টি করে ভোট দিতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ডাকসু নির্বাচনে দুটি ব্যালট পেপার থাকবে। প্রত্যেক ভোটার একটি ব্যালটে কেন্দ্রীয় সংসদে এবং আরেকটিতে হল সংসদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে ভোট দেবেন। ফলে একজন শিক্ষার্থী ডাকসু ও হল সংসদের দুই ব্যালট পেপার মিলিয়ে ৩৮ পদে একটি করে ভোট দিতে পারবেন। এজন্য তিনি সময় পাবেন তিন মিনিট। ভোটগ্রহণের জন্য হলে ছাত্রসংখ্যার অনুপাতে বুথ বসানো হবে। যে হলে শিক্ষার্থী বেশি সেখানে বেশি বুথ এবং যেখানে কম সেখানে কম বুথ থাকবে বলে জানান ডাকসু নির্বাচনের কয়েকজন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

জানতে চাইলে ডাকসুর প্রধান রিটার্নিং কর্মকর্তা অধ্যাপক ড. এসএম মাহফুজুর রহমান বলেন, কোন হলে কত বুথ বসবে সেটি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। তবে বিস্তারিত শিগগিরই সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

এদিকে ডাকসু নির্বাচনকে সামনে রেখে গতকাল বৃহস্পতিবার ক্যাম্পাসজুড়ে প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটান প্রার্থীরা। ছাত্র সংগঠনগুলোর প্যানেল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের পদচারণায় মুখর ছিল ক্যাম্পাস। ছাত্রলীগ ও ছাত্রদল, বামপন্থি জোট ও কোটা আন্দোলনকারী সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদসহ অন্য ছাত্র সংগঠনগুলোর প্রার্থীরা দিনভর ক্যাম্পাসে সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে ভোট প্রার্থনা করেন। স্বতন্ত্র প্রার্থীরাও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কুশল বিনিময়সহ লিফলেট বিতরণ করেন।

নিয়ম অনুযায়ী গতকাল ছিল প্রচারণার শেষ দিন। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী ভোটের ২৪ ঘণ্টা আগে প্রচারণা বন্ধের নিয়ম। আজ শুক্রবার ও কাল শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির কারণে ক্যাম্পাস বন্ধ থাকবে। ফলে ভোটের আগের দিন রোববার প্রচারণা চালাতে পারবেন না প্রার্থীরা। তবে প্রার্থীরা চাইলে শুক্র ও শনিবার হলগুলোতে প্রচারণা চালাতে পারবেন।






Related News

Comments are Closed