ইন্টারনেট সেবা এবার একদম পাওয়া যাচ্ছে না

বাংলাদেশে আজ একাদশ সংসদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণের দিন ইন্টারনেট সেবা একদমই পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানা যাচ্ছে।

নির্বাচনের আগের দিন গতকাল মোবাইল ফোনে থ্রি-জি এবং ফোর-জি সার্ভিস বন্ধ করে দিয়েছিলো নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন বা বিটিআরসি।

কিন্তু মোবাইল ফোনের সেটিংস বদলে নিয়ে অন্তত টু-জি সেবা পাওয়া যাচ্ছিলো।

কিন্তু এখন কোন ধরনের ইন্টারনেট সংযোগই পাওয়া যাচ্ছে না।

তবে বিটিআরসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ জহুরুল হক বিবিসিকে বলেছেন, “টু-জি বন্ধ করে দেয়ার কোন নির্দেশনা দেয়া হয়নি। আমরা নিজেরাতো পাচ্ছি।”

কিন্তু তাহলে মোবাইল ফোনে কোন ধরনের ইন্টারনেট সেবা পাওয়া যাচ্ছে না কেন?

তার জবাবে মি. হক বলেছেন, “কোন ধরনের কারিগরি সমস্যা হয়েছে কিনা তা বলতে পারছি না। নিরাপত্তার স্বার্থে থ্রি-জি এবং ফোর-জি ইন্টারনেট বন্ধ রাখা হয়েছে। কিন্তু টু-জি বন্ধ রাখার বিষয়ে কোন নির্দেশনা দেয়া হয়নি।”

স্থানীয় গণমাধ্যমে অবশ্য বলা হচ্ছে, বিটিআরসির পক্ষ থেকে ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করে দেয়ার নির্দেশনা দেশের সকল মোবাইল কোম্পানিগুলোকে দেয়া হয়েছে।

গত মধ্যরাতের কিছু আগেই এমন নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত ১১ টা থেকে শুক্রবার সকাল আটটা পর্যন্ত মোবাইল ইন্টারনেটে থ্রি-জি এবং ফোর-জি বন্ধ করে শুধু টু-জি সেবা চালু রেখেছিল বিটিআরসি।

এর পরে অবশ্য তা আবার চালু করার হয়।

এর আগে সপ্তাহ দুয়েক আগে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিলো নির্বাচন কেন্দ্রিক গুজব প্রতিরোধে ইন্টারনেটে নজরদারি করছেন তারা।

যাতে করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ব্যবহার করে কেউ কোন ধরনের সহিংসতা উস্কে দিতে না পারে।

এমন সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বিবিসিকে বলেছিলেন, গুজব ও অপপ্রচারের মাধ্যমে কেউ যদি কোথাও নির্বাচন বানচালের উস্কানি দেয় – তবে তা ঠেকাতে দরকারে এমনকি সেই এলাকার মোবাইল নেটওয়ার্কও বন্ধ করে দেয়া হবে।






Related News

Comments are Closed