Main Menu

রূপগঞ্জে স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ জনকে রামদা দিয়ে কুপিয়ে জখম, আহতদের বিরুদ্ধে উল্টো চাঁদাবাজি মামলা

rupরূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পুর্ব শত্রতার জের ধরে স্বামী-স্ত্রীসহ একই পরিবারের ৩ জনকে রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করার পর অভিযুক্তরা উল্টো আহতদের বিরুদ্ধে আদালতে মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা তুলে না নেয়ায় বাদীসহ পরিবারের সদস্যদের হয়রানি করতেই এ মিথ্যা চাঁদাবাজির মামলাটি করেন অভিযুক্তরা এমন দাবি আহতদের।
মামলার বাদী আতিকুর রহমান জানান, একই এলাকার আলম্গীর হোসেন বুলবুলের সঙ্গে তার ভাই মিজানুর রহমানের দীর্ঘদন ধরে পারিবারিক বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। এর জের ধরে গত ১৫ নভেম্বর রাতে সন্ত্রাসী আলমগীর হোসেন বুলবুল, আবুল হোসেন, জাহাঙ্গীর, জাকির হোসেন, মোহাম্মদ আলীসহ তাদের লোকজন মিজানুর রহমানকে রাম-দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। মিজানুর রহমানের ডাক-চিৎকারে আতাউর রহমান ও তার স্ত্রী ইতি বেগম বাচাঁতে এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা তাদেরকেও কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। আহতদের মুমুর্ষ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় আতিকুর রহমান বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
মামলা দায়েরের পর থেকেই আসামীরা বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছে। মামলা তুলে না নিলে বাদীসহ পরিবারের সদস্যদের হত্যা করা হবে বলে হুমকি প্রদান করে। পরে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন মামলার বাদী আতিকুর রহমান। অভিযুক্তদের মধ্যে মোহাম্মদ আলীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
এদিকে, মামলা তুলে না নেয়ায় রামদা দিয়ে কুপিয়ে জখমের মামলার আসামী জাকির হোসেন বাদী হয়ে উল্টো আতিকুর রহমানসহ পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ আদালতে একটি চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেন। চাঁদাবাজি মামলার তদন্ত করছেন ভোলাব তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ও উপ-পরিদর্শক সেলিম মিয়া, আদালতে দায়ের করা চাঁদাবাজি মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত শেষে বিষয়টি বলা যাবে।
এলাকাবাসী জানিয়েছেন, অভিযুক্ত জাকির হোসেন, আবুল হোসেন, জাহাঙ্গীর, আলমগীর হোসেন, মোহাম্মদ আলীসহ তাদের লোকজন প্রায় সময়ই এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে আসছে। এদের ভয়ে এলাকাবাসী প্রতিবাদ করতে সাহস পায়না।






Related News

Comments are Closed