Main Menu

রূপগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে নির্যাতন, মামলা করে হুমকির মুখে

u71news_rapeরূপগঞ্জ (নারায়নগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের বীরলবাড়ী এলাকায় যৌতুকের দাবিতে স্বামীসহ শশুর বাড়ির লোকজন ফরিদা ইয়াছমিন নামে এক গৃহবধূর উপর নির্যাতন চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় নির্যাতিত গৃহবধূ বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলা তুলে নিতে স্বামীসহ শশুর বাড়ির লোকজন মঙ্গলবার সকালে ওই গৃহবধূকে হত্যার হুমকি দেয়। হুমকির পর থেকেই চরম নিরাপত্তাহীনতা ভুগছেন গৃহবধূ ফরিদা ইয়াসমিন।
গৃহবধূ ফরিদা ইয়াছমিন জানান, তিনি উপজেলার বীর হাটাব এলাকার কবির হোসেনের মেয়ে। ২০১৪ সালে একই উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের বীরলবাড়ি এলাকার আতাবুর রহমানের ছেলে রুবেলের সাথে ফরিদা ইয়াছমিনের ইসলামী শরিয়া মোতাবেক বিয়ে হয়। বিয়ের কিছু দিন না যেতেই স্বামী রুবেল, ভাসুর জাহাঙ্গীর, ননদ নিপা ও শ্বশুড় আতাবুর রহমানসহ তারা সকলে মিলেই ফরিদা ইয়াছমিনের উপর নানা ভাবে জুলুম নির্যাতন করতো। নির্যাতনের প্রতিবাদ করলে স্বামী রুবেল প্রায়ই তাকে মারধর করে বাপেড় বাড়িতে থেকে টাকা আনতে চাপ দেয়। এতে ফরিদা অপারগতা স্বীকার করলে অন্তস্বঃতা অবস্থায় তাকে তার বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। বর্তমানে তাদের সংসারে ফারিয়া নামের ১মাস বয়সী একটি কণ্যা সন্তান রয়েছে। ফরিদার কোলে ফারিয়া আসার ৫ মাস আগে থেকেই ফরিদা ইয়াছমিনের ভরণপোষন বন্ধ করে দেয় তার স্বামী। এতে ফরিদা দরিদ্র পিতার বাড়িতেই ঠাই নেয়। এদিকে, গত ৮ অক্টোবর রুবেলের কন্যা ফারিয়ার ভরণ-পোষনের খরচাদী চাইতে ফরিদা তার শ্বশুড় বাড়িতে গেলে ভাসুর জাহাঙ্গীর, ননদ নিপা ও শ্বশুড় আতাবুর রহমান তাকে মারধর করে ফারিয়াকে রেখে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এতে করে ফরিদা তার কন্যাকে হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়ে। তাই ফরিদা ইয়াছমিন তার স্ত্রীর অধিকার ও কন্যা সন্তানের ভরণপোষনের অধিকার ফিরে পেতে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর স্বামীসহ শশুর বাড়ির লোকজন হত্যার হুমকি প্রদান করেন । এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, বিষয়টি জেনে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।






Related News

Comments are Closed