Main Menu

‘শেখ হাসিনা না থাকলে বাংলাদেশ হতো পাকিস্তান’

Sheikh_hasina_011442769609ঢাকা: নারী-পুরুষের সমতা আনা ও নারীর ক্ষমতায়নের জন্য ‘প্ল্যানেট ফিফটি ফিফটি চ্যাম্পিয়ন’ এবং ‘এজেন্ট অব চেঞ্জ অ্যাওয়ার্ড’ পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার ধন্যবাদ জানিয়ে জাতীয় সংসদে প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে।

প্রস্তাবের ওপর সরকার ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা সাধারণ আলোচনায় অংশ নেন। তারা বলেন, শেখ হাসিনা বেঁচে না থাকলে বাংলাদেশ আবারও পাকিস্তান হয়ে যেত। দেশের একজন নেত্রী জ্বালাও-পোড়াও ও মানুষ পুড়িয়ে মারার রাজনীতি করছেন। আরেকজন সব ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত মোকাবিলা করে দেশকে এগিয়ে নিচ্ছেন।

শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, শেখ হাসিনা অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন। তিনি বাংলাদেশকে নিম্ন আয়ের দেশ থেকে নিম্নমধ্যবিত্ত আয়ের দেশে পরিণত করেছেন। তিনি এখন শুধু বাংলাদেশের নয়, সারা বিশ্বের নেত্রীতে পরিণত হয়েছেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সব বাধা, ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত মোকাবিলা করেই পথহারা বাংলাদেশকে সঠিক নেতৃত্ব দিয়ে উন্নয়ন-সমৃদ্ধির পথে নিয়ে গেছেন শেখ হাসিনা। শুধু নারীর নয়, শেখ হাসিনা জনগণের ক্ষমতায়ন করেছেন।

চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ বলেন, অসামান্য অবদানের জন্য বাংলাদেশ থেকে যদি কেউ নোবেল পুরস্কার পাওয়ার যোগ্যতা রাখেন, তিনি হচ্ছেন একমাত্র শেখ হাসিনাই।

কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী বলেন, কোথায় নেই শেখ হাসিনা? জনতার শক্তিতে বলীয়ান হয়ে তিনি সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা এবং জঙ্গি-সন্ত্রাসীদের নির্মূল করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।

জাতীয় পার্টির কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, শেখ হাসিনার এই অর্জনে বিশ্বে বাংলাদেশের মর্যাদা ও ভাবমূর্তি বৃদ্ধি করেছে। বঙ্গবন্ধু যেভাবে সব মানুষকে আপন করে ও বুকে টেনে নিতে পারতেন, শেখ হাসিনাও তেমনি বঙ্গবন্ধুর পথ ধরে রেখে মানুষকে ভালোবেসে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।

 






Related News

Comments are Closed