Main Menu

শেরপুরে বন্যহাতির পায়ে পিষ্ট হয়ে গৃহবধুর মৃত্যু

imagesশেরপুরের সীমান্তবর্তী ঝিনাইগাতী উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের পশ্চিম বাকাকুড়া এলাকার পানবর গ্রামে বন্যহাতির আক্রমণে পিষ্ট হয়ে কিবিরন বেগম (৫০) নামে এক গৃহবধুর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল ২৬ সেপোটম্বর সোমবার সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। কিবিরন ওই গ্রামের মৃত হযরত আলীর স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, সোমবার সন্ধ্যায় পাহাড় থেকে ৩০/৩৫টি বন্যহাতির একটি দল খাবারের সন্ধানে পশ্চিম বাকাকুড়া এলাকার লোকালয়ে নেমে আসে। এসময় স্থানীয় লোকজন হাতি তাড়াতে গেলে নিজ বসতভিটায় দাঁড়িয়ে থাকা কিবিরনকে হাতির দলের একটি হাতি ছুটে এসে শুড় পেচিয়ে গাছের সাথে আছাড় দেয় এবং পা দিয়ে পিষ্ট করে। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

উল্লেখ্য, গত চার দিনে ঝিনাইগাতীর কাংশা ইউনিয়নের পাশ্ববর্তী দুটি এলাকা পশ্চিম বাকাকুড়া ও ছোট গজনী এলাকায় বন্যহাতির আক্রমণে দুই জন নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গত শুক্রবার রাতে পাহাড়ের ঢালে চাষাবাদ করা ধানক্ষেতে ৩০/৩৫টি বন্যহাতির একটি দল ছোট গজনী এলাকায় হানা দেয়। এসময় হাতি তাড়াতে গেলে বন্যহাতির আক্রমণে ললেন মারাক (৫৫) নামে এক উপজাতি গারো কৃষক ঘটনাস্থলেই মারা যায় এবং আরও দুই কৃষক আহত হয়। এসব গারো পাহাড়ী অঞ্চলে প্রায় এক যুগেরও অধিক সময় ধরে বন্যহাতির দল তান্ডব চালিয়ে আসছে।

 






Related News

Comments are Closed