Main Menu

পাক অধিকৃত কাশ্মীরে পাক সেনাবাহিনীর সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নেয়নি রাশিয়া

photo-1474633112সম্প্রতি আন্তর্জাতিক মহলে খবর ছিল পাক অধিকৃত কাশ্মীরের গিলগিট-বালটিসস্তান এলাকার একাংশে রাশিয়ার সেনা জওয়ানরা পাকিস্তানের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে সামরিক মহড়া দিচ্ছে। এই খবর প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গেই আশঙ্কা প্রকাশ করে ভারত। তবে রাশিয়ার পক্ষ থেকে এক বিবৃতি জারি করে এই খবরের সত্যতা অস্বীকার করা হয়েছে।

রাশিয়ার তরফে দাবি করা হয়েছে সামরিক মহড়া চলেছে শুধুমাত্র চেরাট অঞ্চলে। দিল্লিতে রাশিয়ার দূতাবাসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মিলিটারি স্কুল রাট্টুতে পাক-রাশিয়ার সেনা জওয়ানদের যৌথ উদ্যোগে যে সামরিক মহড়ার খবর ছিল, তা কার্যত বিভ্রান্তিমূলক এবং ভুল।

প্রসঙ্গত, রাশিয়ার সংবাদসংস্থা তাস-এর ওয়েবসাইটে পাক-রাশিয়ার এই যৌথ সামরিক ড্রিলের কথা উল্লেখ করে বলা হয়েছিল, এর উদ্বোধন হবে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের রাট্টুর এক সেনা স্কুলে।পরে সেই খবর তাস-এর ওয়েবসাইট থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়।
যদিও দুই দেশের কোনও পক্ষই এই সামরিক মহড়া সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানায়নি। সূত্রের খবর, ভারত পাক অধিকৃত কাশ্মীরে সামরিক মহড়ার খবর শুনে আশঙ্কা প্রকাশ করায়, মস্কো তাদের রাট্টুতে যৌথ মহড়ার সিদ্ধান্ত থেকে পিছিয়ে আসে।

প্রসঙ্গত, দুসপ্তাহ ব্যাপী পাকিস্তান-রাশিয়ার এই যৌথ সামরিক মহড়া ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে, চলবে আগামী ৭ অক্টোবর পর্যন্ত। এই যৌথ মহড়ার অনুষ্ঠানকে ফ্রেন্ডশিপ ২০১৬-র নাম দেওয়া হচ্ছে।

আন্তর্জাতিক কূটনৈতিক মহলের দাবি, ওয়াশিংটনের সঙ্গে ইসলামাবাদের সাম্প্রতিক সম্পর্কের অবনতি হওয়ায়, পাকিস্তান এখন রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক মজবুত করতে বিশেষভাবে আগ্রহী। শোনা গেছে, গত ১৫ মাসে একাধিকবার মস্কো গিয়েছেন পাক সেনাপ্রধান। চারটি এমওয়ান-৩৫ সামরিক হেলিকপ্টার রাশিয়ার থেকে কেনার জন্যে চুক্তি সই করেছে ইসলামাবাদ। এছাড়াও রাশিয়ার থেকে যুদ্ধবিমান এসইউ-৩৫ কেনারও ভাবনা রয়েছে পাকিস্তানের, খবর সংবাদমাধ্যম সূত্রে।






Related News

Comments are Closed