Main Menu

বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক অগ্রগতির প্রশংসায় বিশ্ব ব্যাংক প্রেসিডেন্ট

2016-09-21_8_701177বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ড. জিম ইয়ং কিম আর্থ-সামাজিক অগ্রগতির ক্ষেত্রে বাংলাদেশের বিস্ময়কর উন্নয়নের উচ্চ প্রশংসা করে বলেছেন, দেশটির দারিদ্র্য হ্রাস ও নারীর ক্ষমতায়ন তাকে বিশেষভাবে মুগ্ধ করেছে।
মঙ্গলবার এখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তাঁর হোটেলে সৌজন্য সাক্ষাতকালে বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘আমি সবসময় প্রতিটি অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের সাফল্য গাঁথা তুলে ধরে থাকি।’
কিম বলেন, দারিদ্র্য হ্রাস ও নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশের বিস্ময়কর অর্জন অত্যন্ত উৎসাহব্যঞ্জক।
বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।
বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট বলেন, তার সংস্থা বাংলাদেশের সঙ্গে কর্মকান্ড অব্যাহত রাখবে এবং তিনি আগামী মাসে দক্ষিণ এশিয়ার এদেশ সফরের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন।
কোন দেশ বা উন্নয়ন সংস্থা বিশেষ করে নদী শাসন বা অন্য কোন পরিকল্পনা বা প্রকল্প গ্রহণের সময় তাঁর সরকারের সঙ্গে পরামর্শ করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন প্রধানমন্ত্রী।
তিনি বলেন, ‘সরকারের সঙ্গে পরামর্শ করে গ্রহণ করা হলে পরিকল্পনা বা প্রকল্পটি বাংলাদেশের জন্য যথোপযুক্ত হবে। কারণ, আমরা আমাদের প্রয়োজনগুলো বুঝি।’
বিভিন্ন খাতে তাঁর সরকারের অর্জন তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, তাঁর সরকার জ্বালানী খাত ও নদী খননের ওপর অগ্রাধিকার দিচ্ছে।
বিবিআইএন ও বিসিআইএম ইকোনমিক করিডোরের ব্যাপারে কথা বলার সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, এসব পদক্ষেপ এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির জন্য গ্রহণ করা হয়েছে।
বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীর ক্ষমতায়ন ও শিক্ষাখাতে বাংলাদেশের সাফল্যের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করার কারণে বাংলাদেশের রাজনীতিতে নারীদের অংশগ্রহণের প্রবণতা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।
তিনি বলেন, বর্তমান সংসদে ২১ নারী সদস্য সরাসরি নির্বাচিত হয়ে এসেছেন।
প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা, পৌরসভা ও সিটি কর্পোরেশনের মতো স্থানীয় সরকারগুলোতে ৩০ শতাংশ আসন নারীদের জন্য সংরক্ষিত রাখা হয়েছে।
তিনি বলেন, এসব পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে প্রশাসন, বিচারবিভাগ, শিক্ষা, সশস্ত্র বাহিনী ও আইন-শৃংখলা রক্ষা বাহিনীসহ অন্যান্য সকল খাতে নারীর মর্যাদাকে উঁচু স্তরে নিয়ে গেছে।
এসময় প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী, পররাষ্ট্র বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মো: শাহরিয়ার আলম, মুখ্য সচিব মো: আবুল কালাম আজাদ ও সংশ্লিষ্ট সচিবগণ উপস্থিত ছিলেন।






Related News

Comments are Closed