Main Menu

গুলশানের পর আইএস’র প্রথম হামলার দায় স্বীকার

অনলাইন প্রতিবেদক(মোস্তফা)ঃবাংলাদেশের নরসিংদী জেলায় এক মুদি দোকানিকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনার একদিন পর আইএস দাবি করছে ঘটনাটি তাদের যোদ্ধারা ঘটিয়েছে।

জঙ্গি তৎপরতা পর্যবেক্ষণকারী সাইট ইন্টেলিজেন্স আইএস এর কথিত বার্তা সংস্থা আমাককে উদ্ধৃত করে এমন দাবি করেছে।

গত পহেলা জুলাই গুলশানে হোলি আর্টিজান রেস্তোরায় জঙ্গি হামলার ঘটনার পর নরসিংদীর এ ঘটনাতেই প্রথম আইএস’র নাম উঠে আসলো।

সাইট ইন্টেলিজেন্স আহত চিত্তরঞ্জন আর্য্যকে পুরোহিত বললেও নরসিংদীর পুলিশ বলছে মিস্টার আর্য্য পুরোহিত নন, তিনি মন্দিরের পাশে দোকান চালাতেন।

মঙ্গলবার রাতে হামলার সময় দোকানেই ছিলেন তিনি।

জেলা পুলিশ সুপার আমেনা বেগম বলছেন তারা জানতেন ব্যক্তিগত শত্রুতার কারণে এমনটি হয়েছে।

“পূর্বশত্রুতাও থাকতে পারে কিংবা আইএসের এদেশে যেসব জঙ্গিরা লুকিয়ে যাচ্ছে তারা বা জামায়াত শিবিরের কিছুটা সম্পৃক্ততা থাকতে পারে। সবই খতিয়ে দেখা হচ্ছে”।

চিত্তরঞ্জন আর্য্যকে টার্গেট করার কোন কারণ রয়েছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন ব্যক্তিগত শত্রুতা থেকে করতে পারে। তার নিজের ধারণাও তাই।

পুলিশ সুপার বলছে যেহেতু মন্দিরের পাশে দোকান, তাই হয়তো ধারণা করা হচ্ছিলো সেই সেবায়েত বা পুরোহিত। আসলে এই মন্দিরের কোন সেবায়েত নেই।

পুলিশের ভাষ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার রাতে একটি মোটর সাইকেলে করে তিন জন চিত্তরঞ্জন আর্য্যর দোকানের সামনে আসে।

এর মধ্যে দুজন মুখোশ পরিহিত ছিলো এবং তারাই কুপিয়ে মিস্টার আর্য্যকে আহত করে।

পরে চিৎকার শুনে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়?

সূত্র- বিবিসি বাংলা

আজকের কারের চিত্র/ আরিফ






Related News

Comments are Closed