Main Menu

কুলিয়ারচরে রবিনের তারহীন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট

ছোটবেলা থেকেই নিজে নিজেই নানান যন্ত্রপাতি জুড়ে দিয়ে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স যন্ত্র তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিতেন আশপাশের লোকজনকে। তবে এবার শুধু তাক লাগানোই নয়, রীতিমতো সাড়া ফেলে দিয়েছেন কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার ছেলে ফজলে রাব্বি রবিন। সুবিশাল এলাকাজুড়ে তারবিহীন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা দিয়ে তুমুল আলোচনায় উঠে এসেছেন বিদেশ থেকে ডিগ্রি নিয়ে ফেরা তর”ণ রবিন। তার আবিষ্কৃত তারহীন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট দিয়ে চলছে এখন জেলার কুলিয়ারচর, ভৈরব, বাজিতপুর ও কটিয়াদী উপজেলার প্রায় ৩০ কিলোমিটার এলাকার অনেকেই। নিজের প্রতিষ্ঠান স্কাইনেট টেকনোলজিস থেকে গত ১ জুন থেকে বাণিজ্যিকভাবে কিশোরগঞ্জের ৪ উপজেলার তারহীন উচ্চগতির ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা দিতে শুর” করেন তিনি। এদিকে, রবিনের এ সাফল্যে ইতোমধ্যে তাকে নিজ বাসায় ডেকে নিয়ে কথা বলেছেন তথ্য ও আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। সরেজমিনে গিয়ে ফজলে রাব্বি রবিন ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রবিন অস্ট্রেলিয়ার ইউনিভার্সিটি অব বালারাত থেকে সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট বিষয়ে ৩ বছরের কোর্স শেষ করে বাংলাদেশে ফিরে আসেন।দেশে এসেই তিনি প্রথমে অ্যালুমিনিয়াম দিয়ে অ্যান্টেনা তৈরি করে থ্রিজি নেটওয়ার্ক সংযোগ স্থাপন করেন। এর ফলে মডেমের মাধ্যমে দ্রুতগতির ইন্টারনেট ব্যবহার করা যেত। এরপর রবিন অ্যান্টেনার আরো উন্নত ধাপের পরিকল্পনা মাথায় রেখে নিজ খরচে ২০ লাখ টাকা ব্যয় করে এলাকায় সুউচ্চ একটি টাওয়ার বসান। এরপর ১ জুন থেকে ওই টাওয়ারের মাধ্যমে ৪ উপজেলার জন্য তারহীন ইন্টারনেট সেবা দিতে শুর” করেন। ইতোমধ্যে রবিনের এ অনন্য আবিষ্কারের কথা কুলিয়ারচর উপজেলাসহ আশেপাশের ৩ উপজেলায় ছড়িয়ে পড়েছে। গ্রাহকরা খবর পেয়ে ছুটে আসছেন তার কাছে দ্রুতগতির তারহীন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগ নিতে। ফজলে রাব্বি রবিন বলেন, তার তৈরি টাওয়ার থেকে ইন্টারনেট সংযোগ দেওয়া যাবে আশপাশের ৩০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে। এ জন্য ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের একটি ইউবিএনটি মডেম লাগবে। তিনি বলেন, তিনি বিটিসিএল থেকে ইন্টারনেট সংযোগ নিয়েছেন। সেইসঙ্গে বিটিআরসি থেকে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার (আইএসপি) লাইসেন্স নিয়েছেন। সরকারি সহযোগিতার বিষয়ে রবিন বলেন, আমাদের উপজেলায় বিদ্যুতের সমস্যা প্রকট। তবে বিদ্যুৎ না থাকলেও আমার ব্রডব্যান্ড ইন্টারেট টাওয়ারের জন্য ৩ থেকে ৪ ঘণ্টার পাওয়ার ব্যাকআপ আমি তৈরি করেছি। এ বিষয়ে সরকারি সহযোগিতা পেলে ৪ উপজেলার ইন্টারনেট সেবা দিতে পারব। এদিকে, গত ৭ জুন তথ্য ও আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক তার নিজ বাসায় রবিনকে ডেকে নিয়ে তার সাক্ষাৎকার নেন। পরে প্রতিমন্ত্রী সেই সাক্ষাৎকারের ভিডিও নিজের ফেসবুক ওয়ালে পোস্ট করেন। প্রতিমন্ত্রীর সেই পোস্টে এরইমধ্যে বিপুলসংখ্যক লাইক, কমেন্টসহ শেয়ার হয়েছে ভিডিওটি।






Related News

Comments are Closed