Main Menu

শিরোপা জেতাবে নেইমার-মারতা

অধরা স্বর্ণ জিততে এবারের অলিম্পিকে অনেকটাই কাছে চলে গেছে স্বাগতিক হিসেবে মিশন শুরু করা ব্রাজিল। সেমিফাইনালের টিকিট কেটেছে নেইমারের দল। এদিকে, ফাইনাল নিশ্চিত করতে ব্রাজিলের নারী দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মারতা। এই দুই তারকার হাতেই এবারের অলিম্পিকের শিরোপা দেখছেন ব্রাজিলের ভক্ত-সমর্থকরা। তাদের বিশ্বাস, নেইমার-মারতাই ব্রাজিলকে অলিম্পিকের শিরোপা এনে দেবে। ফাইনালের টিকিট কাটতে প্রথম সেমিফাইনালে রিও ডি জেনিরোতে আগামী বুধবার শিরোপা প্রত্যাশী ব্রাজিলের মুখোমুখি হবে হন্ডুরাস। আর ব্রাজিল নারী দল আজ রাতে সুইডেনের বিপক্ষে সেমিফাইনালের মঞ্চে নামবে। দুটি ম্যাচই বাংলাদেশ সময় রাত দশটায় অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে শেষ আটের ম্যাচে স্বাগতিক ব্রাজিল হারিয়ে দেয় কলম্বিয়াকে। নেইমার আর লুয়ানের গোলে জয় নিয়ে শেষ চার নিশ্চিত করে সেলেকাওরা। তবে, গ্রুপ পর্বের প্রথম দুই ম্যাচে হতাশ হতে হয় নেইমার বাহিনীকে। পেলে-রোনালদো-রোনালদিনহোর উত্তরসূরিরা অলিম্পিক মিশন শুরু করে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র দিয়ে। ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেও নেইমার বাহিনীকে হতাশ হতে হয়। ইরাকের বিপক্ষেও গোলশূন্য ড্র করে ব্রাজিল। ফলে, গ্রুপপর্ব থেকেই বিদায় নেওয়ার শঙ্কা জাগে স্বাগতিকদের। তবে, তৃতীয় ম্যাচে কিছুটা হলেও নিজেদের ফিরে পান নেইমার ও তার দল। গ্রুপপর্বের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে ডেনমার্ককে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে শেষ আটে উঠে রজেরিও মিকালের দল। এদিকে, গ্রুপপর্ব থেকে দুর্দান্ত গতিতে খেলে চলেছে মারতার ব্রাজিল নারী দল। দুই ম্যাচে জয় আর এক ম্যাচে ড্র করে গ্রুপপর্ব থেকে উঠে কোয়ার্টার ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামে সেলেকাওরা। পেনাল্টি শুটআউটে ৭-৬ ব্যবধানে জিতে সেমিতে উঠে মারতা বাহিনী। ব্রাজিল সমর্থকদের মুখে মুখে এখন শুধুই নেইমার-মারতা। ‘নেইমারের নারী ভার্সন মারতা’; ‘স্কার্ট গায়ে পেলে’ এমন সব উপাধিও দেওয়া হচ্ছে ব্রাজিলের সর্বকালের সেরা নারী ফুটবলার মারতাকে। অনেকেই বলছেন, নেইমারের থেকেও দুর্দান্ত মারতা। তবে, মারতা জানালেন, ‘নেইমার তার মতোই, মারতা মারতার মতোই। গ্রুপপর্বে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ব্রাজিল নারী দল গোলশূন্য ড্র করেছিল। এরপর চীনকে ৩-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে পরের ম্যাচে সুইডেনকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দেয় মারতা বাহিনী। ৩০ বছর বয়সী মারতা পাঁচবার বর্ষসেরা ফুটবলার নির্বাচিত হয়েছিলেন। চারবার বর্ষসেরা পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত হলেও রানারআপ হতে হয় তাকে। দুইবার তৃতীয়স্থানে চিলেন তিনি। নারীদের বিশ্বাকাপে ২০০৭ সালে গোল্ডেন বল এবং গোল্ডেন বুট জেতেন। দেশের জার্সি গায়ে এই ফরোয়ার্ড ১০১ ম্যাচ খেলে গোল করেছেন ১০০টি। তাই এবার তার হাত ধরেই অলিম্পিকের শিরোপা জিতবে ব্রাজিল নারী দল-এমনটা বিশ্বাস সেলেকাওদের।






Related News

Comments are Closed