Main Menu

জঙ্গিদমনে প্রান্তিক জনতার অংশগ্রহণ বাড়াতে কমিউনিটি রেডিওর বিকল্প নেই : তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘টেকসই উন্নয়ন, জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে খাপ খাওয়ানো ও জঙ্গিদমনে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সম্পৃক্ততা বাড়াতে কমিউনিটি রেডিও’র কোনো বিকল্প নেই।’
মঙ্গলবার সকালে নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর একটি হোটেলে আয়োজিত দক্ষিণ এশীয় কমিউনিটি রেডিও সম্মেলনের উদ্বোধনী সভায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘যত গণমাধ্যমেরই উত্থান হোক, উন্নয়ন, পরিবেশরক্ষা ও সন্ত্রাসবিরোধী কাজে দূর-দূরান্তের জনগোষ্ঠীর অংশ নেয়া নিশ্চিত করতে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে কমিউনিটি রেডিও’র কোনো বিকল্প নেই।’
একারণে কমিউনিটি রেডিওগুলোর আর্থিক সামর্থ্য বাড়ানোর বিষয়েও বিশেষ নজর দেয়া জরুরি বলে মন্তব্য করেন বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী।
তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, এসোসিয়েশন অব্ কমিউনিটি রেডিও ব্রডকাস্টার (অ্যাকোর‌্যাব), নেপাল এর প্রেসিডেন্ট মোহান চাপাগাইনের সভাপতিত্বে আয়োজিত দু’দিনব্যাপী এ সম্মেলন উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি নেপালের ভাইস প্রেসিডেন্ট নন্দ কিশোর পান। ‘টেকসই উন্নয়নে আন্তঃজনগোষ্ঠী যোগাযোগ’ এ সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য। অন্যান্যের মধ্যে নেপালের তথ্য ও যোগাযোগ সচিব দীনেশ কুমার থাপালিয়া ও বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাশফি বিনতে শামস সভায় উপস্থিত ছিলেন।
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এসময় কন্ঠহীনদের কন্ঠদানে বাংলাদেশ সরকারের আন্তরিকতার কথা উল্লেখ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০১১ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১৭টি কমিউনিটি রেডিও উপকূলবর্তী অঞ্চলসহ বিভিন্ন দূরবর্তী অঞ্চলে সম্প্রচার শুরু করেছে। আরো ১৫টি লাইসেন্সপ্রাপ্ত বেসরকারি কমিউনিটি রেডিও সম্প্রচারের অপেক্ষায়। স্বাস্থ্য, শিক্ষা, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির মতো প্রয়োজনীয় বিষয়াদিসহ নিজস্ব সংস্কৃতি কমিউনিটি রেডিওর মাধ্যমে নিজেরাই তুলে ধরছে জনগোষ্ঠীগুলো।
বাংলাদেশ এনজিওস নেটওয়ার্ক ফর রেডিও এন্ড কমিউনিকেশন (বিএনএনআরসি) এর প্রধান নির্বাহী বজলুর রহমানসহ বাংলাদেশের ২৩ জন কমিউনিটি রেডিও প্রতিনিধি, নেপাল, ভারত, শ্রীলংকাসহ দক্ষিণ এশিয়ার দেশসমূহ ও সম্প্রচার বিষয়ক বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা ও কমিউনিটি রেডিওর ১২০ জন প্রতিনিধি সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন।
এশিয়া-প্যাসিফিক ব্রডকাস্টিং ইউনিয়ন (এবিইউ), এশিয়া-প্যাসিফিক ব্রডকাস্টিং ইনস্টিটিউট ফর ব্রডকাস্টিং ডেভেলপমেন্ট (এআইবিডি), শ্রীলংকান ডেভেলপমেন্ট জর্নালিস্ট ফোরাম (এসডিজেএফ) ও বাংলাদেশ এনজিওস নেটওয়ার্ক ফর রেডিও এন্ড কমিউনিকেশন (বিএনএনআরসি) এ সম্মেলন যৌথভাবে আয়োজন করছে।
উদ্বোধনী সভাশেষে তথ্যমন্ত্রী মঙ্গলবার বিকেলেই দেশে ফিরেছেন।






Related News

Comments are Closed