Main Menu

সিদ্ধিরগঞ্জ র‌্যাব-১১’র অভিযানে পাসপোর্ট অফিসের দালাল চক্রের মূলহোতাসহ গ্রেফতার-২

p-1 (Medium)সিদ্ধিরগঞ্জ র‌্যাব-১১’র অভিযান। থানাধিন জালকুড়ি পাসপোর্ট অফিসের দালাল সিন্ডিকেটের মূলহোতা বন্দর ডকইয়ার্ডে চাঞ্চল্যকর ফয়সাল হত্যা মামলার এজাহার নামীয় আসামি খন্দকার আজমল ওরফে বাবু (২৫) ও তার সহযোগী আজিম আহমেদ (৩২) গ্রেফতার। অবৈধ ভাবে ৩১’টি পাসপোর্ট, বিভিন্ন মেডিকেল অফিসারদের নামে ৭’টি ভুয়া সীল, ২৯৩’টি জন্ম নিবন্ধন সনদ, ২১’টি পুরনকৃত পাসপোর্টের আবেদন ফরম ও দালালির মাধ্যমে আদায়কৃত নগদ ৫৫ হাজার ১০শ’১ টাকাসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১। র‌্যাবের এএসপি মোঃ নাজিম উদ্দিন আল আজাদ এর নেতৃত্বে গত সোমবার সন্ধা সাড়ে ৭’টায় ওই দু‘দালালকে গ্রেফতার করে। ধৃতরা হল বন্দর থানার নবীগঞ্জ কামাল উদ্দিন মোড় এলাকার আলতাফ মাষ্টারের ছেলে খন্দকার আজমল ওরফে বাবু, একই থানার ফনকুল এলাকার মোঃ ছাদেক আলির ছেলে আজিম আহম্মে ।
র‌্যাব জানায়, খন্দকার আজমল ওরফে বাবু ও তার সহযোগী আজিম আহম্মেদসহ অন্যান্য দালালদের নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে সিদ্ধিরগঞ্জ জালকুড়ি পাসপোর্ট অফিসকে ঘিরে একটি সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে। এ চক্রের মূল হোতা বাবু। তারা পাসপোর্ট অফিসে আগত জনসাধারনের নিকট থেকে অতিরিক্ত ফি আদায়সহ বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করে। এছাড়াও এলাকায় প্রভাব বিস্তার এবং কথা কাটাকাটিকে কেন্দ্র করে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গ্রেফতারকৃত খন্দকার আজমল বাবু অন্যান্য আসামীদের সহযোগীতায় চলতি বছরের ২৯ জুলাই কুশিয়ারা পশ্চিম পাড়া এলাকার মোঃ আবদুর রশিদের ছেলে বন্দর ডকইয়ার্ডের শ্রমিক মোঃ ফয়সালকে (১৮) দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফয়সাল মারা যায়। ওই ঘটনায় নিহতের পিতা বাদী হয়ে বন্দর থানার মামলা দায়ের করে। যার নং-৫৬,তারিখ ৩০-০৭-২০১৬। ধারাঃ ১৪৩/৩৪১/৩২৩/৩২৬/৩০২/৩৪ পেনাল কোড। খন্দকার আজমল বাবু ওই ফয়সাল হত্যা মামলার এজাহার নামীয় আসামি। ধৃতদের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় পাসপোর্ট অপরাধ আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।






Related News

Comments are Closed