Main Menu

‘সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ আলোচনা সভা নিয়ে রাজনৈতিক খেলা খেলায় সমালোচনা সৃষ্টি করেছে সিদ্ধিরগঞ্জের মজিবুর রহমান’

photo 1 (1) (Medium)সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের বিতর্কিত সভাপতি আলহাজ মজিবুর রহমানকে সমালোচনায় পিছু ছাড়ছেনা। নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একে এম শামীম ওসমানের আস্তাভাজন হওয়ার সুযোগ কাজে লাগিয়ে একের পর এক বিতর্কিত কর্মকান্ড করে নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি করেই যাচ্ছে মজিবুর রহমান। রাজপথের লড়াকু সৈনিক দলের দুর্দিনের কান্ডারী থানা যুবলীগের সংগ্রামী সভাপতি ও সিদ্ধিরগঞ্জ আওয়ামীলীগের ভবিষ্যৎ কর্ণদার হাজী মতিউর রহমান মতি ও জনপ্রিয় প্রবীন নেতা রিয়াজ উদ্দিন রেনুকে বাদ দিয়ে শুক্রবার বিকেলে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ আলোচনা সভা করে আবরো চরম বিতর্ক সৃষ্টি করেছে সুবিধাবাদী মজিবুর রহমান। আয়োজক নিজে হলে কৌশল কাটিয়ে মজিবুর রাহমান নাসিক ১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের ব্যানারে তার আস্তাভাজন ভলেন্টিয়ার সাদেক, লেতুর ছামাদ, পটু রমজান পদহীন যুবলীগনেতা চুনা ফারুককে অতিথি করে মজিুবর রহমান জঙ্গি বিরোধী আলোচনা সভা করে। স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকার খেতাব প্রাপ্ত জামায়াত-শিবিরের সাথে গোপন আতাঁতকারী নেতারাও সভায় উপস্থিত ছিলেন বলে ক্ষোভের সাথে অভিযোগ জানায় ত্যাগী আওয়ামীলীগ নেতারা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ত্যাগী নেতা জানায়, বর্তমানে জঙ্গিবাদ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সমস্যায় পরিণত হওয়ায়, প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে সন্ত্রাসী জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলার নির্দেশ প্রদান করেছে। অথচ সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগ সভাপতি মজিবুর রহমান সন্ত্রাস জঙ্গি প্রতিরোধ কর্মসূচী নিয়েও রাজনৈতিক খেলা শুরু করেছে। থানার জনপ্রিয় ও ত্যাগী নেতাকর্মীদের অবমূল্যায়ন করে নিজের আস্তাভাজন হাতে গনা কয়েকজন বিতর্কিত লোকদের নিয়ে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ আলোচনা সভা করেছে মজিবুর রহমান। অনেকই ক্ষোভের সাথে জানায়,জনসমর্থনে যার অবস্থান শূন্যের কোটায় সেই মজিবুর রহমান শুধুমাত্র এমপি শামীম ওসমানের আস্তাভাজন হওয়ায় নিজের পদবীর জোরে একের পর একের বিতর্কিত কাজ করে দলে কোন্দল সৃষ্টি করছে।
দলীয় একটি সূত্র জানায়,গত রমজান মাসে ইফতার মাহফিলের জন্য এমপি শামীম ওসমানের দেওয়া ২ লাখ টাকা অনুদান গোপন রাখায় সিনিয়র সহ-সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন রেনুর সাথে মজিবুর রহমানের বিরোধ সৃষ্টি হয়। লাখ লাখ টাকা চাঁদা দিয়েও বহু নেতাকর্মী ইফতার না পওয়া নিয়ে ক্ষোভের রেশ কাটতে না কাটতেই মজিবুর রহমান এমপি শামীম ওসমানের দেওয়া যাকাতের কাপড় বিতরণে চরম অনিয়ম ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। নিজের পছন্দের লোকদের দ্বারায় কার্ড বিতরণ করায় প্রকৃত গরীর দুস্থ্যরা এমপি শামীম ওসমানের দেওয়া কাপড় পায়নি। ফলে এ নিয়েও কিছু কিছু নেতা প্রতিবাদ জানায়। মজিবুর রহমানের বিতর্কিত কর্মকান্ড,স্বেচ্ছাচারিতা ও চাঁদাবাজির প্রতিবাদ করায় রিয়াজ উদ্দিন রেনুর সাথে বিরোধ সৃষ্টি হওয়ায় থানা এলাকার সিংহভাগ নেতাকর্মী মজিবুর রহমানের ডাকে সার দিচ্ছেনা। তাছাড়া পদ হারানোর ভয়ে থানা যুবলীগ সভাপতি মতিউর রহমান মতিকে এড়িয়ে চলছে মজিবুর রহমান। অথচ মতির ডাকে মুহুর্তের মধ্যে হাজার হাজার নেতাকর্মী একত্র হয়ে পড়ে। থানা আওয়ামীলীগের ভবিষ্যৎ সভাপতি মতিকে দুর্বল করে রাখতে জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকলেও মজিবুর রহমান তার আয়োজতি অনুষ্ঠানে মতিকে দাওয়ার দেয়না। যে কারণে মজিবুর রহমানের অনুষ্ঠানে নেতাকর্মীর উপস্থিতি থাকে একে বারে কম। তার পরও মজিবুর রহমান বেহায়ার মত চাঁদাবাজ,মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত এমন বিতর্কিত লোকদের সহায়তা নিয়ে পরের ধনে পুদ্দারি করে যাচ্ছে বলে তৃণমূল নেতাকর্মীদের অভিযোগ।






Related News

Comments are Closed